নকলায় দিনব্যাপী এসডিজি বাস্তবায়ন প্রশিক্ষন কর্মশালায় অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার এ এইচ এম লোকমান

নিজস্ব প্রতিবেদন:

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের গভর্নেন্স ইনোভেশন ইউনিট এর তত্বাবধানে শেরপুরের নকলায় স্থানীয় পর্যায়ে টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট (এসডিজি) বাস্তবায়ন বিষয়ক প্রশিক্ষন কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার এ.এইচ.এম লোকমান (রাজস্ব) ময়মনসিংহ। ২৪ জুন সোমবার সকাল সাড়ে ১০টায় উপজেলা পরিষদের অডিটরিয়াম মিলনায়তন কক্ষে এ কর্মশালায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাহিদুর রহমান।

উপজেলা কৃষি সম্প্রসারন কর্মকর্তা দৈয়দ রায়হাদের উপস্থাপনায় কর্মশালায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক এবিএম এহছানুল মামুন (রাজস্ব) শেরপুর, উপজেলা চেয়ারম্যান এড. মাহাবুবুল আলম সোহাগ, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোস্তাফিজুর রহমান, সাধারন সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা শফিকুল ইসলাম জিন্নাহ। এ সময় উপজেলার সকল দপ্তর-অধিদপ্তরের কর্মকর্তাগন, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, নাগরিক সমাজের প্রতিনিধি, ব্যাবসায়ী, ক্ষুদ্র নী-গোষ্ঠি প্রতিনিধি, বে-সরকারী প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি, চেম্বার অফ কমার্সের প্রতিনিধি, নারী উদ্দোক্তা, স্কুল-কলেজের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি এবং প্রিন্ট ও ইলেকট্রিক মিডিয়ার সাংবাদিকগন উপস্থিত ছিলেন।

সকাল সাড়ে ১০টায় শুরু হয়ে কর্মশালা চলে বিকাল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (রাজস্ব) এ এইচ এম লোকমান বলেন, কাউকে উন্নয়নের বাইরে রেখে উন্নয়ন সম্ভব নয়-সবাই মিলে ভালো থাকার নামই হচ্ছে উন্নয়ন। বর্তমান সফল সরকার যে সকল কর্মসূচী হাতে নিয়েছেন তার মধ্যে, ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ হবে মধ্যম আয়ের দেশ, ২০৩০ সালের মধ্যে এসজিডি টেকসই উন্নয়ন বাস্তবায়ন, ২০৪১ সালের মধ্যে সোনার বাংলা হবে বিশ্বের মধ্যে উন্নত দেশ এবং ২০৭১ সালে শত বছর পূর্তিতে সমৃদ্ধির বাংলাদেশ হবে বিশ্বের ১-৩ স্থানে অবস্থান করবে।

এবারে এসডিজিতে অভীষ্ট নির্ধারন করা হয়েছে মোট ১৭টি। তার মধ্যেঃ- দারিদ্য বিমোচন, ক্ষুধা মুক্তি, সু-স্বাস্থ্য ও কল্যান, মানসম্মত শিক্ষা, নারী-পুরুষের সমতা, নিরাপদ পানি ও স্যানিটেশন, সাশ্রয়ী ও দুষনমুক্ত জ্বালানী, কর্মসংস্থান, শিল্প, উদ্ভাবন ও অবকাঠামো, অসমতা হ্রাস, টেকসই নগর ও সমাজ, দায়িত্বশীল ভোগ ও উৎপাদন, জলবায়ু কার্যক্রম, জলজ জীবন, স্থলজ জীবন, শান্তি ও ন্যায়বিচার কার্যকর প্রতিষ্ঠান এবং লক্ষ্য পূরনে অংশীদারীত্ব। ১৭টি অভীষ্টের আওতায় ১৬৯টি লক্ষ্যমাত্রা এবং ২৩২ টি সূচকে কাজ করবে।

“উন্নয়নের গনতন্ত্র শেখ হাসিনার মূলমন্ত্র-জনগন প্রশাসন দুইয়ে মিলে সুশাসন” সকলে যার যার অবস্থান থেকে ভালো মন মানসিকতা নিয়ে কাজ করলে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়া সম্ভব। এজন্য সকলে মিলে একসাথে কাজ করতে হবে। ####






সংযুক্তিমূলক সংবাদ ..

  • ঝিকরগাছায় দুর্নীতি প্রতিরোধ কার্যক্রম গতিশীলকরণে বিভিন্ন স্কুল-কলেজে রচনা, বিতর্ক প্রতিযোগীতা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত
  • ঝিকরগাছার কায়েমকোলায় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে যুবকের মৃত্যু
  • ডাচ-বাংলা এজেন্ট ব্যাংকিং আতাইকুলা শাখার ১ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিক পালন
  • না’গঞ্জের রূপগঞ্জে বিফলে গেল সরকারের ১ কোটি ৩৭ লাখ টাকা
  • পাবনা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সম্মেলনে হেভিওয়েট প্রার্থী ইঞ্জি. রুহুল আমিন
  • পীরগঞ্জে বিএমএসএফ এর ৭ বছর পূর্তি উপলক্ষে র‌্যালি ও আলোচনা অনুষ্ঠিত
  • পাইকগাছায় দৈনিক যায়যায়দিনের ১৪ তম প্রতিষ্ঠাতা বার্ষিকী পালিত
  • বাগেরহাটে সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত ১
  • Leave a Reply