ভ্যালেন্সিয়ার কাছে হেরে গেল রিয়াল

ম্যাচটা জিতে লা লিগার পয়েন্ট টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে থাকা অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদের সঙ্গে পয়েন্ট ব্যবধান কমানোর সুযোগ ছিল রিয়াল মাদ্রিদের সামনে। কিন্তু ভ্যালেন্সিয়ার মাঠ থেকে ২-১ গোলের পরাজয় সঙ্গী করে ফিরল জিনেদিন জিদানের শিষ্যরা। গত মাসেই রিয়ালের দায়িত্বে ফেরা জিদানের এটি দ্বিতীয় মেয়াদের প্রথম পরাজয়।

ম্যাচটা অন্তত এই বাস্তবতা চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিল, কোচ পাল্টালেই হবে না, রিয়ালকে আরও অনেক কিছুই পাল্টাতে হবে। বিশেষ করে বড় কোনো তারকা ফরোয়ার্ড না কিনতে পারলে এই মৌসুম তো গেছেই, পরের মৌসুমেও কপাল খুলবে না লস ব্ল্যাঙ্কোসদের।

চলতি মৌসুমে রিয়ালের আর কিছু পাওয়ার নেই। সম্ভাব্য সব শিরোপাই হাত থেকে ছুটে গেছে। বুধবার (৪ মার্চ) দিনগত রাতে ভ্যালেন্সিয়ার মাঠ থেকে জিতে ফিরতে পারলে অন্তত নগর প্রতিদ্বন্দ্বী অ্যাথেলেটিকোর সঙ্গে পয়েন্ট ব্যবধান দুইয়ে নামিয়ে আনা যেত। কিন্তু সেটাও সম্ভব হলো না। এখন বাকি ম্যাচগুলো জেতার পাশাপাশি দিয়েগো সিমিওনের দলের পা হড়কানোর অপেক্ষায় থাকতে হবে তাদের।

লা লিগায় নিজেদের ৩০তম ম্যাচে রিয়ালের রক্ষণকে রীতিমত পরীক্ষায় ফেলে দিয়েছে। দু’বার তা থেকে ফলও তুলে নিয়েছে। প্রথমবার ম্যাচের ৩৫তম মিনিটে ডিফেন্ডার সার্জিও রামোসকে পেছনে ফেলে ডি-বক্সে ঢুকে রিয়াল গোলরক্ষক কেইলর নাভাসকে পরাস্ত করে লক্ষ্যভেদ করেন ভ্যালেন্সিয়া মিডফিল্ডার গনসালো গুয়েদেস। নাভাস এগিয়ে গিয়েছিলেন বটে, কিন্তু ততক্ষণে দেরি হয়ে গেছে।

প্রথমার্ধে আরও কমপক্ষে দু’বার গোল হজম করতে পারতো রিয়াল, কিন্তু বড় বাঁচা বেঁচে গেছে তারা। দ্বিতীয়ার্ধে ছোটখাটো কিছু সুযোগ রিয়ালও হাতছাড়া করেছে। কিন্তু ৮৩ মিনিটে রিয়ালের বুকে শেল বিঁধিয়ে দেন ভ্যালেন্সিয়ার ডিফেন্ডার ইজাকুয়েল গ্যারে। পারেজোর করা কর্নার কিকে হেড করে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন রিয়ালেরই সাবেক এই তারকা। রিয়ালের কাসেমিরোও লাফিয়ে বল ঠেকাতে চেয়েছিলেন, কিন্তু বল ছুঁতে ব্যর্থ হন এই ব্রাজিলিয়ান সেন্টার-ব্যাক।

ম্যাচের অতিরিক্ত সময়ে ঘুরে দাঁড়ায় রিয়াল। একবার তো পেনাল্টিও পেয়ে গিয়েছিল। কিন্তু ভিডিও রেফারির রিপ্লেতে দেখা যায় অফসাইডে ছিলেন রামোস। তবে পরের মিনিটেই ব্যবধান কমান রিয়াল স্ট্রাইকার করিম বেনজেমা। কর্নার থেকে বল পেয়ে মাত্র ৫ গজ দূরে থেকে লক্ষ্যভেদ করেন ফরাসি তারকা। কিন্তু তার এই গোল রিয়ালের আফসোস বাড়ানো ছাড়া আর কিছুই দিতে পারেনি।

এই পরাজয়ে ৩০ ম্যাচে ৫৭ পয়েন্ট নিয়ে তিনেই রইলো রিয়াল মাদ্রিদ। আর সমান ম্যাচে ৪৬ পয়েন্ট নিয়ে পাঁচে উঠে এলো ভ্যালেন্সিয়া। ৭০ পয়েন্ট নিয়ে আগের মতো সবার ওপরে বার্সেলোনা। অন্যদিকে দ্বিতীয় স্থানে থাকা অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদের পয়েন্ট ৬২।



« (পূর্ববর্তী সংবাদ ...)
(পরবর্তী র্সবাদ ...) »



সংযুক্তিমূলক সংবাদ ..

  • জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বাংলাদেশের অবিশ্বাস্য জয়
  • এশিয়া কাপ আর্চারিতে সোনা জিতলেন বাংলাদেশের রোমান
  • সাতক্ষীরায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টূর্নামেন্টে ধুলিহর ইউনিয়ন চ্যাম্পিয়ন
  • আশাশুনিতে জাতীয় ফুটবল টুর্ণামেন্টে শ্রীউলা উপজেলা চ্যাম্পিয়ন
  • রোনালদোর ৪ গোলে পর্তুগালের দাপুটে জয়
  • বাংলাদেশকে হারিয়ে নবীন টেস্ট দল আফগানিস্তানদের ইতিহাস
  • আশাশুনিতে জাতীয় ফুটবল টুর্ণামেন্টের ৩য় রাউন্ডের ১ম খেলা ২-২ গোলে ড্র
  • আমিরাতকে হেসে খেলেই হারালো বাংলাদেশ
  • Leave a Reply