ডাবের পানি যে ৭ রোগ নিয়ন্ত্রণ করে

প্রখর রোদ, অসহনীয় গরমে ক্লান্ত পথিকের তৃষ্ণা মেটাতে ডাবের পানির বিকল্প নাই। দাম একটু বেশি হলেও তৃষ্ণার্ত মানুষের প্রাণ জুড়াতে ডাবের চাহিদা প্রচুর।

সুস্থ থাকতে ঠাণ্ডা পানির পাশাপাশি প্রতিদিন মাত্র এক গ্লাস ডাবের পানি পান করার অভ্যাস গড়ে তুলুন। এ অভ্যাস আপনাকে শুধু গরম থেকেই রেহাই দেবে না, একইসঙ্গে সাত শারীরিক সমস্যা থেকেও মুক্তি দিবে।

জেনে নিন প্রতিদিন এক গ্লাস ডাবের পানি পানে যেসব শারীরিক সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন-
উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ: ডাবের পানিতে বিদ্যমান মিনারেলস শরীরের রক্ত সঞ্চালন প্রক্রিয়া স্বাভাবিক রাখে। একইসঙ্গে উচ্চ রক্তচাপও নিয়ন্ত্রণে রাখে। এতে হৃদরোগসহ অন্যান্য কার্ডিওভাসকুলার রোগের সম্ভাবনাও কমে যায়।

হজম সমস্যার সমাধান: প্রতিদিন অন্তত এক গ্লাস ডাবের পানি পানের ফলে বুক জ্বালা, অ্যাসিডিটি, পেট ফাঁপার সমস্যা দূর হয়। এছাড়া হজম সংক্রান্ত নানা সমস্যা দূর করতেও ভূমিকা রাখে ডাবের পানি।

ওজন কমায়: যে কোনো চিনিযুক্ত ফলের জুসের চাইতে বেশি কার্যকরী হলো ডাবের পানি। কোনো ফ্যাট না থাকায় তা ওজন কমাতে সাহায্য করে।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়: ডাবের পানিতে রিবোফ্লেবিন, নিয়াসিন, থায়ামিন এবং পেরিডক্সিন প্রভৃতি বিদ্যমান রয়েছে। এই উপাদানগুলো দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা উন্নত করতে সহায়তা করে। এছাড়া ডাবের পানির অ্যান্টিভাইরাল ও অ্যান্টিব্যকটেরিয়াল উপাদান বিভিন্ন ধরনের ভাইরাসের আক্রমণ থেকেও রক্ষা করে।

কিডনির সমস্যা দূরে রাখে: ডাবের পানিতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে কার্যকরী মিনারেল যেমন, পটাশিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম রয়েছে। এগুলো কিডনির রোগ প্রতিরোধে সহায়তা করার পাশাপাশি ইউরিনের যে কোনো সমস্যা দূর করে।

ত্বকের সুরক্ষায়: ডাবের পানি ত্বকের জন্য বিশেষভাবে কার্যকরী। নানা সমস্যা যেমন ভ্রণ, মেছতা, ছোপ ছোপ দাগ, উজ্জ্বলতা হারানো, ত্বকের ইনফেকশন এসব সমস্যা দূর করতে নিয়মিত ডাবের পানি পানের অভ্যাস গড়ে তুলুন। চাইলে সরাসরি ডাবের পানি ব্যবহার করতে পারেন।

কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে: খাবার হজমে বিশেষভাবে সহায়ক ডাবের পানি। তাই নিয়মিত এ পানি পানে বদহজমের কারণে কোষ্ঠকাঠিন্যের মতো সমস্যা সহজেই দূর করা সম্ভব।






Leave a Reply