শীর্ষ ইয়াবা ডনদের রাজপ্রসাদ’সহ জমি ক্রোক

সাতক্ষীরা নিউজ ডেস্ক ::আদালতের নির্দেশে কক্সবাজারের টেকনাফে শীর্ষ তিন ইয়াবা কারবারির দোতলা দুই ‘রাজপ্রসাদ’সহ জমি ক্রোক করা হয়েছে। এখন থেকে এই সম্পদের রক্ষণাবেক্ষণ করবে পুলিশ। ক্রোক করা সম্পদের দাম ৩০ কোটি টাকার বেশি হবে জানায় পুলিশ।

শনিবার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত টেকনাফ মডেল থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাসের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল টেকনাফের নাজির পাড়া এলাকায় ইয়াবা ব্যবসায়ীদের রাজপ্রসাদের মতো বাড়িগুলোতে অভিযান চালায়। এসময় বাড়িতে থাকা লোকজনকে বের করে দিয়ে বাড়িগুলো পুলিশ নিজেদের জিম্মায় নিয়ে নেয়।

যে তিন ইয়াবা ডনের সম্পদ ক্রোক করা হয়েছে তারা হলেন- টেকনাফের নাজিরপাড়ার এজাহার মিয়া (৭০) ও তার দুই ছেলে নুরুল হক ভুট্টো (৩২) ও নূর মোহাম্মদ ওরফে মংগ্রী (৩৫)। এর মধ্যে নুরুল হক ভুট্টো সরকারের তৈরি করা ইয়াবার তালিকায় শীর্ষ রয়েছে। তবে এর মধ্যে গত দুই মাস আগে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নুর মোহাম্মদ নিহত হয়েছেন।

এবিষয়ে ওসি প্রদীপ কুমার দাস বলেন, ‘এই প্রথম আদালতের নির্দেশে শনিবার সকালে তিন ইয়াবা ডনের বাড়ি ক্রোক করা হয়েছে। এই বাড়িগুলো এখন পুলিশের হেফাজতে থাকবে। আদালতে নির্দেশে পরবর্তী প্রদক্ষেপ নেওয়া হবে। যাদের বাড়িগুলো ক্রোক করা হয়েছে তারা এক সময় রিকশা ও ভ্যান চালক ছিল। এখন তারা সবাই কোটি টাকার মালিক।’

তিনি বলেন, ‘সীমান্তে লবণ চাষি, দিন মজুর, রিকশা ও ভ্যান চালকরা মরণ নেশা ইয়াবা বেচাকেনা করে টেকনাফে আলিশান সব বাড়ি বানিয়েছে। সারাদেশে মাদকবিরোধী অভিযান শুরু হলে এসব বাড়ি ছেড়ে পালিয়েছে তালিকাভুক্ত বাবারা (ইয়াবা ব্যবসায়ীরা)। আবার অনেকে গ্রেফতার ও বন্দুকযদ্ধে নিহত হয়েছে। ইয়াবার টাকায় যারা অবৈধ সম্পদের মালিক বনে গেছে, পর্যাক্রমে তাদেরও একই পরিণতি হবে।’






সংযুক্তিমূলক সংবাদ ..

  • অবসরের জন্য দুই মাস সময় চেয়েছেন মাশরাফি
  • বাণিজ্য সম্প্রসারণে বেনাপোল বন্দরে নির্মিত হবে কার্গো টার্মিনাল
  • পাইকগাছায় ভারী বর্ষণে বিস্তির্ণ এলাকা প্লাবিত
  • ‘খালেদা জিয়া বাংলাদেশকে মিনি পাকিস্তান বানিয়েছিলো’
  • রাজধানীর রূপনগরে বস্তিতে ভয়াবহ আগুন
  • ডুমুরিয়ার থুকড়া বায়তুস সালাম যাকাত কমিটির পক্ষ থেকে এক বিধবার আর্থিক সহযোগিতা প্রদান
  • চামড়া সিন্ডিকেটের হোতা সরকারি দলের এক বড় নেতা : রিজভী
  • ১৫ আগস্ট নিয়ে কটূক্তি করায় নুরকে যুবলীগের মারধর
  • Leave a Reply