আশাশুনির সংবাদ


আশাশুনিতে ঘুর্ণিঝড়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি

জি এম মুজিবুর রহমান, আশাশুনি :: সোমবার ভোররাতে প্রচন্ড ঘূর্নিঝড় ও শিলাবৃষ্টিতে আশাশুনি উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। ঝড়ে স্কুল, দোকান পাট ও বসবাসের গৃহের চাল উড়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি এবং গাছগাছালি ও আম ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।

রবিবার দিবাগত রাতে সবাই যথারীতি ঘুমিয়ে ছিলেন। ভোর ৪ টার দিকে হঠাৎ করে প্রচন্ড বজ্রপাত শুরু হয়। বজ্রপাতের শব্দে মানুষের ঘুম ভেঙ্গে যায়। এর কিছুক্ষণের মধ্যে শুরু হয় প্রবল ঘূর্নি ঝড় ও শিলাবৃষ্টি। ঝড় ও বৃষ্টিতে এলাকা তছনছ হয়ে যায়।

ঝড়ে কাদাকাটি জে কে ডি নিম্ম মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৩টি ক্লাস রুম ও বারান্দার টিনের চাল উড়েগেছে। ফলে স্কুলের ক্লাস পরিচালনা বন্দের উপক্রম হয়েছে। একই সময় যদুয়ারডাঙ্গা সপ্তপল্লী বাজারের পবিত্র সরকারের উষা এন্টারপ্রাইজ নামে একটি সার ও কীটনাশকের দোকানের চাল উড়ে লক্ষাধিক টাকার সার পানিতে ভিজে গলে গেছে।

বাজারের বিনা মিষ্টান্ন ভান্ডারসহ আরও ৪টি দোকানের চাল উড়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। এছাড়া বুধহাটা, কাদাকাটি, কুল্যা, বড়দল, খাজরা, আনুলিয়া, প্রতাপনগর, আশাশুনি সদর, শ্রীউলা ও শোভনালী ইউনিয়নের বহু ঘরবাড়ি, প্রতিষ্ঠান, গাছগাছালীর ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। আমের মুকুল ঝরে গেছে। বিদ্যুতের খুঁটি উপড়ে যাওয়ায় এলাকা বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে।

সড়ক দুর্ঘটনায় আশাশুনির মটর সাইকেল চালক নিহত

আশাশুনি উপজেলার কুল্যা ইউনিয়নের আরার কাদাকাটি গ্রামের এক মটর সাইকেল চালক ট্রাকের বডির শেকলে আটকে রাস্তায় পড়ে মৃত্যুবরণ করেছেন। রবিবার রাত্র ৮ টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

আরার গ্রামের বাছা খোকা সরদারের পুত্র আফছার আলি (৩২) রবিবার কাদাকাটি থেকে দু’জন যাত্রী নিয়ে সাতক্ষীরা গিয়েছিলেন। ডাক্তারের কাছে রোগি দেখানোর পর রাত্র ৮ টার দিকে তাদেরকে নিয়ে বাড়ি ফেরার সময় চায়না বাংলা’র সামনের সড়কে ভয়ানক যানজটে পড়ে আস্তে আস্তে গাড়ী চালাচ্ছিলেন। এক পর্যায়ে তার সামনে থাকা একটি ট্রাকের পিছনের শেকলের সাথে তার মটর সাইকেলের হ্যান্ডেল আটকে গেলে চলন্ত ট্রাক মটর সাইকেল টেনে নিয়ে যেতে থাকলে তারা সড়কে পড়ে আঘাত প্রাপ্ত হন।

প্রচন্ড আঘাতে চালক আফছার অজ্ঞান হয়ে গেলে দ্রুত তাকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। রাত্র ৯ টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

বড়দল চেয়ারম্যান বিইইউএফ এর স্বর্ণপদক পেয়েছেন

আশাশুনি উপজেলার বড়দল ইউপি চেয়ারম্যান আঃ আলিম মোল্যা বাংলাদেশ ইউনিয়ন পরিষদ ফোরাম (বিইইউএফ) এর স্বর্ণ পদক ও সম্মাননা পাওয়ার সৌভাগ্য অর্জন করেছেন। রবিবার বিকালে ঢাকাস্থ হোটেল সার্স-এ আয়োজিত সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে তাকে পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়।

বিইইউএফ এর আজীবন সদস্যদের মধ্যে যারা এলজিএসপিতে এ গ্রেডভুক্ত তাদের মধ্যে সফল চেয়ারম্যানকে নির্বাচিত করে পুরস্কারের জন্য নির্বাচিত করা হয়ে থাকে। চেয়ারম্যান আঃ আলিম তার কর্মকান্ডে সফলতার স্বীকৃতি স্বরূপ স্বর্ণপদক ও সম্মাননা সনদ পাওয়ার যোগ্যতা অর্জন করেন। বিইইউএফ সভাপতি মাহবুবুর রহমান টুলুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে পুরস্কার তুলে দেন, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন এমপি। কুড়িগ্রাম-১ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য আসলাম হোসেন সওদাগার, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সদস্য সচিব মাহমুদ, আবুল কাশেম চৌধুরী, সিনিঃ সাংবাদিক আবু সাইদ খা প্রমুখ বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন।

আশাশুনিতে ২জন ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীর মনোনয়ন জমা

উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অংশ নিতে আশাশুনিতে সোমবার ২ জন ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও রিটার্নিং অফিসার মীর আলিফ রেজার কার্যালয় এ মনোনয়নপত্র জমা দেওয়া হয়।

নির্বাচন কমিশন ঘোষিত তফশীল মোতাবেক ২৬ ফেব্রুয়ারি মনোনয়নপত্র জমাদানের শেষ দিন। গত মঙ্গলবার (২০ ফেব্রয়ারি) ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৬ জন মনোনয়নপত্র উত্তোলন করেন। এরপর আরও ২ জন মনোনয়নপত্র উত্তোলন করেন। তারা হলেন ভাইস চেয়ারম্যান (সাধারণ) এমডি ফিরোজ আহম্মেদ, এস এম সাহেব আলি (উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি), জি এম আক্তারুজ্জামান (উপজেলা আ’লীগ সহ-সভাপতি), মতিলাল সরকার (উপজেলা কৃষকলীগ সাধারণ সম্পাদক)। পরবর্তীতে উপজেলা কৃষকলীগ সভাপতি স ম সেলিম রেজা সেলিম, সাংবাদিক আব্দুস সামাদ বাচ্চু (উপজেলা আ;লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক) ও সাংবাদিক অসীম বরণ চক্রবর্তী মনোনয়নপত্র উত্তোলন করেন। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে মোছাঃ হেনা গাজী (ইউনিয়ন মহিলা আওয়ামীলীগ আহবায়ক) ও মোসলেমা খাতুন (ইউনিয়ন যুব মহিলালীগ সাধারণ সম্পাদক)। এদের মধ্যে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি এস এম সাহেব আলি সোমবার মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এসময় আঃ রহমান মিঠু, বাবুল আক্তার, আঃ আলিম বুলবুল ও মনিরুজ্জামান উপস্থিত ছিলেন।

একই দিন হেনা গাজী মনোনয়নপত্র জমা দেন। এসময় যুবলীগ নেতা সাংবাদিক এম এম সাহেব আলি, রাজীব আহম্মেদ, সাইফুল ইসলাম, আঃ রাজ্জাক, মুজিবুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।






Leave a Reply