গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে ৪র্থ শ্রেণীর স্কুল ছাত্রী ও আদিবাসী তরুণীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে  মামলা দায়ের

নিজস্ব প্রতিনিধি,গাইবান্ধা:  গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে ৪র্থ শ্রেণির এক স্কুল ছাত্রী ও আদিবাসী তরুণীকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে থানায় দুদিনে দুটি পৃথক মামলা দায়ের হয়েছে। রোববার রাতে উপজেলার ফাঁসিতলা বাজারে ও সোমবার সকালে কামদিয়া ইউনিয়নের তেঘড়া লালোপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। মামলা সূত্রে জানা যায়, গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার কোচাশহর ইউনিয়নের জগন্নাথপুর (বাজিতপুর) গ্রামের তুহিন মিয়ার ৯ বছরের শিশু কন্যা জগন্নাথপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৪র্থ শ্রেণির ছাত্রী রোববার বিকেলে তার দাদা আতাউল হকের সাথে ডাক্তার দেখানোর জন্য ফাঁসিতলা বাজারে যায়। ডাক্তার দেখানোর পর দাদা তাকে ফাঁসিতলা- দাঁড়িদহ রাস্তার মোড়ে একটি দোকানের সামনে বসিয়ে রেখে জরুরী কাজে বাজারের মধ্যে যায়। এসময় মেয়েটির বান্ধবীর মামা পরিচয় দিয়ে অচেনা এক ব্যক্তি প্রলোভন দেখিয়ে শিশুটিকে পাশ্ববর্তী আখ ক্ষেতে ডেকে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষনের চেষ্টা করে। কিছুক্ষণ পর শিশুটি আখ ক্ষেতের ভেতর থেকে ক্ষত-বিক্ষত ও কাঁদামাটি মাখা অবস্থায় কাঁদতে কাঁদতে বেরিয়ে আসে। পরে স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় তার দাদা শিশুটিকে উদ্ধার করে গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ ভর্তি করে। হাসপাতালের চিকিৎসকরা প্রাথমিক অবস্থায় শিশুটিকে পরীক্ষা নিরীক্ষা করে। এব্যাপারে গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মজিদুল ইসলাম জানান, শিশুটিকে উন্নত পরীক্ষা নিরীক্ষার জন্য গাইবান্ধা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।এ ঘটনায় শিশুটির দাদা বাদি হয়ে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তির বিরুদ্ধে রোববার রাতেই গোবিন্দগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা গোবিন্দগঞ্জ থানার এস আই আবু বক্কর সিদ্দিক বলেন, শিশুটিকে ধর্ষণ করা হয়েছে কিনা তা ডাক্তারী পরীক্ষার রিপোর্ট পাওয়ার পর নিশ্চিত হয়ে এ বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এছাড়া কামদিয়া ইউনিয়নের তেঘড়া (লালোপাড়া) গ্রামে সোমবার সকালে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠির এক কিশোরী (১৬) কে বাড়িতে লোক না থাকার সুবাদে ধর্ষণের চেষ্টা করে সকালে বাড়ির পাশের মাঠে পরিবারের সবাই ধান কাটার কাজে গেলে বাড়িতে একা থাকার সুযোগে একই গ্রামের সাখাওয়াত হোসেনের বখাটে পুত্র রনি মিয়া (২২), শ্রী সরকার মুরমুর পুত্র শ্রী সনাতন মরমু(১৮) এবং তাদের আরো এক অজ্ঞাত সহযোগী পূর্ব পরিকল্পিতভাবে মোটর সাইকেল যোগে পানি খাওয়ার অজুহাতে বাড়ির ভিতর অনুপ্রবেশ করে এবং নাবালিকা তরুণীকে জোরপূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা করে। এসময় তার আত্ম চিৎকারে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এলে তারা দ্রুত মোটর সাইকেল নিয়ে পালিয়ে যায়। এঘটনায় কিশোরীর পিতা গোবিন্দগঞ্জ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছে। গোবিন্দগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) একেএম মেহেদী হাসান বিষয়টি নিশ্চিত করে জানিয়েছেন ছাত্রী ও , কিশোরী মেয়েটির দাদা ও বাবার অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। তদন্ত সাপেক্ষে দোষীদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। ####






সংযুক্তিমূলক সংবাদ ..

  • ঝিকরগাছার কপোতাক্ষ নদে পোনা মাছ অবমুক্ত করলেন – ডাঃ নাসির উদ্দিন এমপি
  • যশোরের শার্শা সীমান্তে মাদক ও অবৈধ অনুপ্রবেশকারী সহ আটক-৩
  • বাণিজ্য সম্প্রসারণে বেনাপোল বন্দরে নির্মিত হবে কার্গো টার্মিনাল
  • সিলেটে নাইমের বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার
  • দুর্গন্ধে নাভিশ্বাস পারাইরচক
  • পৃথিবীর এই জঘন্যতম হত্যাকান্ড থেকে বাঁচতে পারেননি বঙ্গবন্ধু – শেখ আফিল উদ্দিন এমপি
  • জাতির পিতার আদর্শকে ধারণ করে সব ধরণের চক্রান্ত প্রতিহত করতে হবে- শোক দিবসে ডাঃ নাসির উদ্দিন এমপি
  • আ ন ম শফিকুল হকের মৃত্যুতে সামছুল ইসলাম লস্করের শোক প্রকাশ
  • Leave a Reply