ঢাকাকে হারিয়ে শিরোপা কুমিল্লার ঘরে

বিপিএলের ষষ্ঠ আসরে ঢাকাকে ১৭ রানে হারিয়ে দ্বিতীয় বারের মতো শিরোপা নিজেদের ঘরে তুলে নিলো কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। এদিন কুমিল্লার দেওয়া ২০০ রানের কঠিন লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ১৮২ রানে ইনিংস গুটিয়ে যায় সাকিব আল হাসানের দল ঢাকার। ফলে ১৭ রানের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ইমরুল বাহিনী। বিপিএলের ফাইনালে ব্যাট হাতে অনবদ্য ছিলেন তামিম। দেশসেরা ওপেনার তামিম ইকবালের ব্যাট থেকে ৬১ বলে ১০ চার আর ১১ ছয়ে অপরাজিত ১৪১ রান আসে। বিপিএল তো বটেই, সব মিলিয়ে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটেও এটাই তামিম ইকবালের এক ম্যাচে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রান।

জয়ের জন্য ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি ঢাকার। শুরুইতেই শুন্য রানে আউট হয়ে সাজঘরে ফিরেন নারিন। এর পর রনি তালুকদার ও থারাঙ্গা দলের হাল ধরেন। দলিয় ১০২ রান পর্যন্ত দলকে টেনে নিয়ে ৪৮ রানে স্বদেশী বোলার পেরেরার বলে আবু হায়দারের হাতে ক্যাচ তুলে দিয়ে সাজঘরে ফিরেন এই লংকান ব্যাটসম্যান। সঙ্গী ফিরে গেলেও নিজের জাত ঠিকি জানান দেন রনি তালুকদার। তিনি মাত্র ২৬ বলে হাফ-সেঞ্চুরি তুলে নেন। ৬৬ রান করে রান আউট হয়ে সাজঘরে চলে আসেন এই ঢাকার ব্যাটসম্যান। আউট হবার আগে ৬ চার ও ৪ ছয়ে এই ইনিংস সাজান তিনি।

রনি আউট হলে বাকিরা আসা যাওয়ার মিছিলে যোগ দেন। সাকিব ৩,কাইরন পোলার্ড ১৩, রাসেল ৪, নুরুল হাসান ১৮,শুভাগত ০,মাহমুদুল হাসান ১৫ ও রুবেল ৪রান করলে ঢাকা ১৮২ রান করে থেমে যায়।

কুমিল্লার হয়ে সাইফুদ্দিন ২,ওহাব রিয়াজ ৩ ও পেরেরা ২ টি উইকেট তুলে নেন।

এর আগে, প্রথমে টস জিতে বোলিং করার সিধান্ত নেন ঢাকার অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। ফলে আগে ব্যাট করতে মাঠে নামে ইমরুল কায়েসের দল কুমিল্লা। শুরুতেই ওপেন করতে মাঠে নামেন তামিম ও লুইস। ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি কুমিল্লার। দলীয় ৯ রানে রুবেলের বলে এলবিডব্লিউ হয়ে সাজঘরে ফিরে আসেন এই ক্যারিবিয়ান। এর পর এনামুলকে সাথে নিয়ে দলের হাল ধরেন টাইগার হার্ডহিটার তামিম। এই জুটিতে তারা ৯৮ রান যোগ করেন তামিম-বিজয়। বিজয় আউট হলে বেশিদূর এগুতে পারেননি শামছুর রহমান। ১ রান যোগ করেই সাকিবের হাতে রান আউট হয়ে ফিরে যান তিনি।

অধিনায়ক ইমরুল কায়েসকে সাথে নিয়ে বাকি কাজটুকু সারেন তামিম। তামিম-ইমরুল দলকে ১৯৯ রানে নিয়ে গিয়ে ঢাকাকে চ্যালেঞ্জিং লক্ষ্য দিয়ে তাদের ইনিংস শেষ করেন। ইমরুল ১৭ রানে অপরাজিত থাকেন আর তামিম ৬১ বল খেলে ১৪১ রানে অপরাজিত থাকেন। ১০ চার ও ১১টি ছক্কার সাহায্যে তামিম তার এই ইনিংস সাজান।

ঢাকার হয়ে সাকিব ও রুবেল একটি করে উইকেট তুলে নেন।






সংযুক্তিমূলক সংবাদ ..

  • এ বছরের বিশ্বকাপ খেলতে পারবে না ব্রাজিল
  • মার্চে পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলবেন ওয়ার্নার-স্মিথ!
  • রিয়ালের বিপক্ষে মালকমে রক্ষা বার্সেলোনার
  • আশাভঙ্গ রাজশাহীর, প্লে অফে ঢাকা
  • নেইমারকে ছাড়া বিপদে পড়বে পিএসজি: বুফন
  • আলাভেসকে উড়িয়ে টানা চতুর্থ জয় রিয়ালের
  • মেসির জোড়া গোলে রক্ষা পেল বার্সা
  • Leave a Reply