ট্রাম্প-কিম বৈঠক ভিয়েতনামে

উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের সঙ্গে এ মাসের শেষ নাগাদ দ্বিতীয়বারের মতো শীর্ষ বৈঠকে মিলিত হতে চলেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

মঙ্গলবার মার্কিন কংগ্রেসের এক যৌথ অধিবেশনে বার্ষিক স্টেট অব ইউনিয়ন ভাষণে এ ঘোষণা দেন স্বয়ং প্রেসিডেন্ট।

জাতির উদ্দেশ্যে দেওয়া এই ভাষণে মেক্সিকো সীমান্তে একটি দেয়াল নির্মাণের প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করেছেন ট্রাম্প। পাশাপাশি রাজনৈতিক ঐক্যের ডাকও দেন।

চলতি মাসের ২৭-২৮ তারিখে ভিয়েতনামে উত্তর কোরিয়ার নেতা কিমের সঙ্গে বৈঠক করবেন বলেও জানান তিনি।

ট্রাম্প বলেন, ‘আমরা কোরিয়া উপদ্বীপে শান্তি প্রক্রিয়া অব্যাহত রাখবো। আমাদের বন্দিরা ঘরে ফিরে এসেছে। পরমাণু পরীক্ষা বন্ধ হয়েছে এবং সেখানে গত ১৫ মাসের বেশি সময় ধরে কোনো ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ হচ্ছে না।’

এরপরই তিনি নিজের প্রশংসা করে বলেন, ‘আমি যদি মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত না হতাম তাহলে এখনও উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে যুদ্ধে লিপ্ত থাকতো যুক্তরাষ্ট্র। এটা আমার ধারণা।’

এরপর তিনি বলেন, ‘এখনও অনেক কাজ বাকি আছে। তবে কিম জং উনের সঙ্গে আমার বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক তৈরি হয়েছে এবং আমরা ফেব্রুয়ারির ২৭ ও ২৮ তারিখে ফের মিলিত হতে চলেছি।’

এই বৈঠক ভিয়েতনামে হবে বলে জানা গেলেও এখনও এর ভেন্যু নির্দিষ্ট হয়নি। তবে ধারণা করা হচ্ছে, রাজধানী হ্যানয় বা দা নানং শহরে হতে পারে বৈঠকটি।

এক ঘনিষ্ঠ সূত্রের বরাত দিয়ে সিএনএন বলছে, কিমের পছন্দ হ্যানয়, কারণ সেখানে উত্তর কোরিয়ার দূতাবাস রয়েছে। তবে যুক্তরাষ্ট্র দা নানং শহরকেই প্রাধান্য দিচ্ছে।

গত বছর সিঙ্গাপুরে ট্রাম্প-কিম ঐতিহাসিক বৈঠকের পর থেকেই দুই নেতার দ্বিতীয় বৈঠকের কথা শোনা যাচ্ছিলো। সিঙ্গাপুরের ওই বৈঠকটি ছিল উত্তর কোরিয়ার একজন নেতার সঙ্গে কোনো ক্ষমতাসীন মার্কিন প্রেসিডেন্টের প্রথম বৈঠক।

এদিকে পিয়ংইয়ংয়ে পরমাণু নিরস্ত্রিকরণ সম্পর্কিত এক বৈঠকে অংশ নিতে বুধবার উত্তর কোরিয়া সফর শুরু করেছেন মার্কিন দূত স্টিফেন বিয়েগুন।প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে কিম জং উনের দ্বিতীয় বৈঠকের পরিকল্পনা এগিয়ে নিতেই এ সফর করছেন বিয়েগুন।

উত্তর কোরিয়ায় পরমাণু নিরস্ত্রিকরণের বিষয়ে একটি রোডম্যাপ প্রতিষ্ঠা করাই তার মূল লক্ষ্য বলে জানিয়েছেন স্টিফেন বিয়েগুন।



« (পূর্ববর্তী সংবাদ ...)



সংযুক্তিমূলক সংবাদ ..

  • ইস্তাম্বুলে ভবন ধসে নিহত বেড়ে ১৬
  • আফগানিস্তান থেকে অর্ধেক সেনা প্রত্যাহার করবে যুক্তরাষ্ট্র
  • ভয়ঙ্কর ক্ষেপণাস্ত্র বানাবে রাশিয়া
  • মেক্সিকো সীমান্তে ৩৭৫০ সেনা পাঠাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র
  • প্রথমবারের মত আরব আমিরাত সফরে পোপ ফ্রান্সিস
  • আবারো কি শুরু হবে স্নায়ুযুদ্ধ?
  • Leave a Reply