ঐতিহাসিক বিজয়ের পর যা বললেন এরদোগান!

300873_1

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়েপ এরদোগান বলেছেন, তার দেশের জনগণের মধ্যে কোনো বিভক্তি নেই। সবাই সঠিক পথের পক্ষেই রয়েছেন। এখন নতুন ব্যবস্থার (প্রেসিডেন্ট শাসিত) মাধ্যমে এটিকে এগিয়ে নিতে হবে।

ঐতিহাসিক গণভোটে রায় পাওয়ার পর রোববার ইস্তাম্বুলে সমর্থকদের উদ্দেশে তিনি এসব কথা বলেন।

এরদোগান বলেন, ‘বিশ্বের অন্য জাতির দ্বারা আমরা বহু আক্রান্ত হয়েছি। আপনারা দেখেছেন পশ্চিমারা আমাদের ওপর কি ন্যাক্কারজনক আক্রমণই না করেছে।’

গণভোটের রায় সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘আমরা আমাদের সঠিক গন্তব্যেই আছি। এখন এটিকে (প্রেসিডেন্ট শাসিত নতুন ব্যবস্থা) এগিয়ে নিতে হবে। দেশের জন্য আমাদেরকে আরও পরিশ্রম করতে হবে।’

রোববারের গণভোটে এরদোগানের ক্ষমতা বৃদ্ধির পক্ষে বেশিরভাগ ভোট পড়েছে। গণভোটের এ রায়ে দেশটিতে রাজনৈতিক ব্যবস্থায় ব্যাপক পরিবর্তন আসবে। ফলে সংসদীয় গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা বাদ দিয়ে দেশটি প্রেসিডেন্ট শাসিত ব্যবস্থায় ফিরে যাচ্ছে।

রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা আনাদলু এজেন্সি জানায়, ৯৮ ভাগের বেশি ভোট গণনার পর দেখা যায়, সরকারের প্রস্তাবিত সংবিধান পরিবর্তন তথা ‘হ্যাঁ’ এর পক্ষে প্রায় ৫১ দশমিক ৩৬ ভাগ ভোট পড়েছে। অন্যদিকে না ভোট পড়েছে ৪৮ দশমিক৬৪ ভাগ।

বিজয়ের পর এরদোগান বলেন, ‘তুর্কি জনগণের এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ আমাদের দেশের একটি ঐতিহাসিক মুহূর্ত। প্রজাতন্ত্রের ইতিহাসে এই প্রথম, আমরা আমাদের ক্ষমতাসীন ব্যবস্থা জনগণের রাজনৈতিক আকাঙ্ক্ষার মাধ্যমে পরিবর্তন করতে যাচ্ছি।’

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট জানান, ক্ষমতা বাড়িয়ে নিতে স্পষ্টতই সংখ্যাগরিষ্ঠের সমর্থন পেয়েছেন তিনি। এখন সাংবিধানিক সংস্কার বাস্তবায়ন করা হবে।

তবে রিপাবলিকান পিপলস পার্টিসহ (সিএইচপি) প্রধান দুই বিরোধী দল গণভোটের এই ফল প্রত্যাখ্যান করেছে।

নির্বাচনে অনিমের অভিযোগ তুলে দল দুটি বলছে, রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম ভোটের হিসেবে গড়মিল করেছে।

তারা এই ফলকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে ৬০ শতাংশ ভোট পুনর্গণনার দাবি তুলেছে।

এদিকে, ইস্তাম্বুলসহ তুরস্কের বিভিন্ন শহরে গণভোটে ‘জয়’ উদযাপন করছেন এরদোগানের সমর্থকরা। রাতভর তারা সড়কে দেশের পতাকা হাতে উল্লাস করে।

আঙ্কারায় ক্ষমতাসীন একে পার্টির সদর দফতরে সমর্থকরা ভিড় করেন এবং তারা স্লোগান দিয়ে, গাড়ির হর্ণ বাজিয়ে উল্লাস করেন।

এরদোগানের সমর্থকদের দাবি, প্রেসিডেন্ট নির্বাহী ক্ষমতা পেলে তা দেশকে উন্নত করবে।

এরদোগানের বক্তব্যের আগে তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী বিনালি ইলদিরিম সাংবিধানিক সংস্কারের পক্ষে রায় দেয়ায় দেশটির জনগণেকে ধন্যবাদ জানান।

আঙ্কারায় একে পার্টির কার্যালয়ের সামনে জড়ো হওয়া সমর্থকদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘আমাদের গণতান্ত্রিক ইতিহাসে নতুন এক অধ্যায় শুরু হল। অপশক্তির বিরুদ্ধে আমরা সবাই এক দেহে ভাই-বোনের মতো। আমরা একই সত্তা, একই জাতি।’

সূত্র: রয়টার্স, আলজাজিরা, বিবিসি, আনাদলু






সঙ্গতিপূর্ণ আরো খবর

  • মেক্সিকোজুড়ে মাদক নিয়ে লড়াইয়ে নিহত ৩৫
  • ফ্রান্স নির্বাচন: দ্বিতীয় ধাপে যাচ্ছেন ম্যাক্রন এবং লে পেন
  • মার্কিন নৌবহরে যোগ দিল জাপানের যুদ্ধজাহাজ
  • উত্তর কোরিয়ার সীমান্তে রাশিয়ার সেনা
  • ভেনিজুয়েলারে বিক্ষোভ, পুলিশের গুলিতে ৩ জন নিহত
  • যেখানে স্বৈরতন্ত্র, সেখানে প্রেসিডেন্সিয়াল পদ্ধতি থাকে না : এরদোগান
  • গণভোটে জয়ী হওয়ায় এরদোয়ানকে অভিনন্দন ট্রাম্পের