যৌবন ধরে রাখতে যেসব খাবার খাবেন

172421_1

সাতক্ষীরা নিউজ ডটকম ডেস্ক :: প্রকৃতির নিয়মে মানুষের বয়স বাড়ার সাথে সাথে বয়সের ছাপ পড়তে থাকে শরীরে। কিন্তু বয়স বাড়লেও একটু চেষ্টা করলেই আপনি শরীরকে আরো সুন্দর ও আকর্ষণীয় করে রাখতে পারেন।

নিয়মিত ব্যায়াম মেডিটেশনের পাশাপাশি খাদ্যাভ্যাসটাও যদি ঠিক রাখেন তাহলে আপনার বয়স বাড়লেও সুন্দর থাকতে পারবেন। এ জন্য খাদ্য তালিকায় রাখতে পারেন নিচে বর্ণিত খাবারগুলো:

দই

নিয়মিত দই খান। দইয়ে থাকা ব্যাকটেরিয়া শরীরের জন্য ভালো। দই বয়সজনিত কারণে হওয়া রোগগুলো প্রতিরোধ করে। দইয়ে ক্যালসিয়ামও থাকে।

কমলা

কমলালেবু খাওয়া শরীরের জন্য খুবই ভালো। কারণ এই ফলে ভিটামিন সি থাকে। ত্বক টানটান রাখে কমলালেবু।

অলিভ অয়েল

অলিভ তেল রোগ থেকে যেমন দূরে সরিয়ে রাখবে, তেমনি ত্বকে এনে দেবে উজ্জ্বলতা। যা আপনার বয়সকে সত্যিই কম করে দেখাবে।

বেরি

স্ট্রবেরি হোক কিংবা ব্ল্যাকবেরি সবকটিই শরীরের জন্য ভালো। বিশেষ করে কালো জাম। এতে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন ‘সি’ থাকে। এই জাতীয় ফল ত্বককে রাখে সতেজ।

পালংশাক

শাক অনেকে পছন্দ করেন না। কিন্তু যদি বয়স ধরে রাখতে চান, তবে পালংশাক খাদ্য তালিকায় রাখুন। পালংশাকে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি এবং ই রয়েছ যা সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মি থেকে ত্বককে রক্ষা করে থাকে। এটি হৃদযন্ত্র সুস্থ রাখে এবং রক্তচাপ কমিয়ে দেয় এবং কলেস্টরল হ্রাস করতে সাহায্য করে। রান্না বা সালাদ যেকোনোভাবে খেতে পারেন পালংশাক।

গাজর

এই সবজিতে আছে পর্যাপ্ত পরিমাণে ভিটামিন এ। যা দৃষ্টিশক্তি ভালো রাখতে সাহায্য করে। তাছাড়া ত্বকের জন্যও গাজর অত্যন্ত উপকারী। ভিটামিন এ কোষ গঠনে সাহায্য করে তাই ত্বক সুন্দর রাখে। তাছাড়া বিভিন্ন ধরনের ক্যান্সার রোধেও সাহায্য করে গাজর।

ডার্ক চকলেট

কোকো প্রোটিন ও ভিটামিন বি সমৃদ্ধ অত্যন্ত পুষ্টিকর একটি উৎসও যা চুলের গুনগত মান ভালো করে। এছাড়া এটি শরীরের বাড়তি চর্বি পুড়িয়ে ওজন কমাতে সহায়তা করে।

মিষ্টিআলু

বিভিন্ন ধরনের পুষ্টি উপাদানের অন্যতম উৎস মিষ্টিআলু। তাছাড়া ডায়বেটিসের ঝুঁকি কমাতেও সাহায্য করে মিষ্টিআলু। এতে রয়েছে গ্লুটাথায়ন নামের একটি অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। যা হজম শক্তি বাড়াতে এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি করতে সাহায্য করে। আলঝাইমার, লিভারের সমস্যা, বিভিন্ন ধরনের ক্যান্সার, হার্ট অ্যাটাক, স্ট্রোক ইত্যাদির ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করে মিষ্টি আলু। এছাড়া মিষ্টি আলুতে ভিটামিন সি’র পরিমাণও প্রচুর। যা ত্বকের বলিরেখা দূর করতে সাহায্য করে।

ব্লুবেরি

উচ্চ ভিটামিন, খনিজ পদার্থ এবং পটাসিয়াম সমৃদ্ধ ব্লুবেরি শরীরে বার্ধক্যের বিরুদ্ধে কাজ করে এবং ত্বকের ফোলা ভাব কমায়।

গ্রিন টি বা সবুজ চা

তারুণ্য ধরে রাখতে অনেক জনপ্রিয় একটি পানীয় হচ্ছে সবুজ চা। সবুজ চায়ে রয়েছে একাধিক পুষ্টি উপাদান ও খনিজ পদার্থ যেমন অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যা ভাজহীন ত্বক এবং আভ্যন্তরীণ অবস্থা ভালো রাখতে সাহায্য করে।






সঙ্গতিপূর্ণ আরো খবর

  • তেঁতুলের উপকারিতা
  • যেসব খাবার খেলে গরম লাগবে না
  • ডায়াবেটিসে কিডনী ক্ষতি হয়
  • যে কারণে প্রতিদিন কলা খাবেন
  • তুলসী পাতার রসে কিডনির পাথর ভালো হয়ে যায়!
  • লিভার পরিষ্কার রাখবেন যেভাবে
  • অতিরিক্ত মিষ্টি পানীয় নষ্ট করছে আপনার পুরুষত্ব – জানেন কি ?