ভারতের সঙ্গে প্রতিরক্ষা চুক্তি হবে আত্মঘাতী : রিজভী

rizvi_42193_1489571599

সাতক্ষীরা নিউজ ডেস্ক :: ভারতের সঙ্গে সামরিক চুক্তি হলে তা আত্মঘাতী এবং জাতীয় স্বাধীনতা বিরোধী হবে বলে দাবি করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। তিনি বলেছেন, বাংলাদেশের নিরাপত্তা যদি ভারতের ওপর নির্ভরশীল হয় এবং ভারতের ইচ্ছা অনুযায়ী যদি প্রতিরক্ষা নীতি গ্রহণ করতে হয়, তাহলে দেশের স্বাধীনতা ও স্বার্বভৌমত্ব বলে কিছু থাকবে না।

বুধবার দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন রিজভী।

জনগণ কোনো গোপন চুক্তি মেনে নেবে না জানিয়ে বিএনপির এই জ্যেষ্ঠ নেতা বলেন, প্রধানমন্ত্রীর আসন্ন ভারত সফরে ভারতের প্রধান চাহিদা প্রতিরক্ষা চুক্তি। এছাড়াও আরো দুই চুক্তির কথা শোনা যাচ্ছে। তাই জনগণকে অবহিত না করে কোনো গোপন চুক্তি করলে কেউ তা মেনে নেবে না। সর্বশক্তি দিয়ে দাসত্বের শৃঙ্খলে বাধার এমন চুক্তি জনগণ, রাজনৈতিক দল ও বিভিন্ন সংগঠন প্রতিহত করবে।

রিজভী বলেন, আমরা আগেই বলেছি, ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের সামরিক চুক্তি হলে দেশের স্বাধীনতা ও স্বার্বভৌমত্ব হুমকির মুখে পড়বে কি না-তা নিয়ে দেশের মানুষ দুশ্চিন্তাগ্রস্ত হয়ে পড়েছে। প্রতিরক্ষা চুক্তি একটি স্পর্শকাতর বিষয়। এর সাথে দেশের নিরাপত্তা স্বাধীনতা স্বার্বভৌমত্ব জড়িত। এই চুক্তির বিষয়ে আজ দেশের মানুষ চরমভাবে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠায় ভুগছে।

সম্প্রতি ভারতের কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা ‘রিসার্স এন্ড অ্যানালাইসিস উইং’-‘র’ এর বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনার দেয়া বক্তব্যকে রহস্যজনক বলে মনে করছেন রিজভী।

বিএনপির এই নেতা বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হঠাৎ ভারতবিরোধী বক্তব্য দিয়ে আলোড়ন সৃষ্টি করেছেন। তিনি বলেছিলেন ২০০১ সালে ভারতের ‘র’ এবং যুক্তরাষ্ট্র মিলে বিএনপিকে ক্ষমতায় বসিয়েছিল। হঠাৎ করে তার এই ধরনের উক্তি রহস্যজনক। এটি একটি পাতানো খেলারই অংশ। কেননা ‘র’ কাদের স্বার্থে কাজ করে জনগণ ভালো করেই জানে। তাই হঠাৎ করে প্রধানমন্ত্রীর ‘র’ এর বিরুদ্ধে বিরোধিতা যে তামাশারই অংশ তাতে জনগণের মধ্যে কোনো সংশয় নেই।

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব বলেন, সাবমেরিন কেনার পর ভারত প্রতিরক্ষা চুক্তির বিষয়ে বেশি করে চাপ প্রয়োগ করছে। ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের অনেক বিষয় অমীমাংসিত থাকলেও প্রতিরক্ষা চুক্তির করার জন্য উঠে পড়ে লেগেছে।

লক্ষ্মীপুরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নৌকায় ভোট চেয়ে যে বক্তব্য দিয়েছেন তা কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ভোটারদের প্রভাবিত করবে বলে দাবি করেন রিজভী। প্রধানমন্ত্রীর এমন বক্তব্য সংবিধান এবং নির্বাচনী আচরণের পরিপন্থি বলে মনে করেন তিনি।






সঙ্গতিপূর্ণ সংবাদ

  • বঙ্গবন্ধু সেতুর পাশে আরেকটি সেতু হবে : রেলমন্ত্রী
  • খালেদা জিয়া সরকারের আমলেই দেশে সন্ত্রাস জঙ্গীবাদের প্রভাব বিস্তার ঘটে : নাসিম
  • সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যমে জঙ্গিবাদ সমস্যা সমাধান হতে পারে : ফখরুল
  • রাজনৈতিক ফায়দা নিতেই জঙ্গিবাদকে ব্যবহার করছে সরকার : ফখরুল
  • বিএনপি ক্ষমতায় এসে মানুষের ভাগ্য নিয়ে ছিনিমিন খেলে : প্রধানমন্ত্রী
  • বঙ্গবন্ধুর পরে শেখ হাসিনার মত দেশপ্রেমিক কেউ নেই : নাসিম
  • কাজে অবহেলা পেলে ছাড় দেয়া হবে না : প্রধানমন্ত্রী