স্যামসাং মোবাইল বাংলাদেশ প্রি-বুকিং গ্রাহকদের হাতে তুলে দিলো গ্যালাক্সি সি৯ প্রো

c9-pro-handover

সাতক্ষীরা নিউজ ডেস্ক :: স্যামসাং মোবাইল বাংলাদেশ, প্রি-বুকিং গ্রাহকদের হাতে তুলে দিলো স্মার্টফোন লাইনআপের সর্বশেষ সংস্করণ জনপ্রিয় গ্যালাক্সি সিরিজের নতুন মডেল গ্যালাক্সি সি৯ প্রো হ্যান্ডসেট। প্রি-বুকিং অফার গ্রহণ করে গ্রাহকরা পেয়েছেন একটি এক্সক্লুসিভ স্যামসাং স্কুপ ব্লুটুথ স্পিকার। এই ডিভাইসটির প্রি-বুকিং-এর শেষ তারিখ ছিলো ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ কিন্তু প্রি-বুকিং গ্রাহকদের কাছ থেকে অভিভূতকারী চাহিদা ও সাড়া পাওয়ার ফলে ১৭ ফেব্রুয়ারিতে স্যামসাং এই ডিভাইসটির সফল প্রি-বুকিং সমাপ্তি ঘোষণা করে।

এর আগে, ‘স্মার্টফোন এন্ড ট্যাব এক্সপো ২০১৭’-তে স্যামসাং-এর প্যাভিলিয়নে এই ডিভাইসটির উন্মোচন ও প্রি-বুকিং শুরু ঘোষণা হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন মাননীয় আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, স্যামসাং ইলেকট্রনিক্স বাংলাদেশের জেনারেল ম্যানেজার ইয়াং উ লী এবং হেড অব মোবাইল মূয়ীদুর রহমান।

স্যামসাং ইলেকট্রনিক্স বাংলাদেশের হেড অব মোবাইল মূয়ীদুর রহমান বলেন, “স্যামসাং-এ আমরা সবসময় গ্রাহকদের অভিজ্ঞতাকে সমৃদ্ধ এবং আনন্দময় করার চেষ্টা করি। স্মার্টফোনগুলোর ব্যবহার বৃদ্ধির সাথে, এর চমৎকার সব অ্যাপ এবং এর মাল্টি-টাস্কিং ক্ষমতার কারণে এখনকার গ্রাহকদের মধ্যে অধিক কার্যক্ষমতার ডিভাইস ব্যবহারের চাহিদা তৈরি হয়েছে। বাংলাদেশী গ্রাহকদের মাঝে গ্যালাক্সি সি৯ প্রো তুলে দেওয়ার মাধ্যমে আমরা সেরা মানের স্মার্টফোন ব্যবহারের সুযোগ করে দিতে পেরে সত্যিই আনন্দিত। এই ডিভাইসিটি গ্রাহকদের অভিজ্ঞতাকে নিয়ে যাবে অনন্য এক মাত্রায়”।

সুপারফোন হিসেবে পরিচিত গ্যালাক্সি সি৯ প্রো হ্যান্ডসেটটি সেই সব গ্রাহকদের জন্য প্রস্তুত করা হয়েছে যারা স্মার্টফোন থেকে আরও বেশি কিছু প্রত্যাশা করেন। এটিতে রয়েছে সেরা স্ক্রিন, মেমোরি এবং ক্যামেরা। সেরা মানের এসব ফিচারের মাধ্যমে গ্রাহকরা গ্যালাক্সি সি৯ প্রো স্মার্টফোনে উপভোগ করতে পারবেন সেরা মাল্টিমিডিয়া, স্বচ্ছ এবং অসাধারণ ছবি দেখার অভিজ্ঞতা। স্যামসাং-এর সকল অনুমোদিত ব্র্যান্ড স্টোরে গ্যালাক্সি সি৯ প্রো স্মার্টফোনটি কালো ও সোনালী রং-এ পাওয়া যাবে। এই ডিভাইসটির মূল্য ৪৯,৯০০ টাকা মাত্র। গ্রাহকরা সকল শীর্ষ ব্যাংকের মাধ্যমে ০% ইন্টারেস্টে ইএমআই সুবিধা উপভোগ করতে পারবেন।

অসাধারণ কার্যক্ষমতা

এই প্রথমবারের মতো স্যামসাং মোবাইল গ্যালাক্সি সি৯ প্রো স্মার্টফোনে নিয়ে এসেছে শক্তিশালী কার্যক্ষমতার জন্য ৬ গিগাবাইট র‌্যাম, যেটি নিশ্চিত করবে নিরবিচ্ছিন্ন মাল্টি-টাস্কিং-এর অভিজ্ঞতা। এছাড়াও, এতে রয়েছে ৬৪ গিগাবাইট অভ্যন্তরীণ মেমোরি এবং ২৫৬ গিগাবাইট পর্যন্ত বাড়তি মেমোরি ব্যবহারের সুবিধা। এতে রয়েছে ৬৪ বিট অক্টা কোর প্রসেসর, যা গ্রাহকদের স্বাচ্ছন্দ্যপূর্ণ মাল্টিমিডিয়া, গেমিং এবং অ্যাপস ব্যবহারের অভিজ্ঞতা দেবে।

ধরে রাখুন জীবনের সেরা মুহুর্তগুলো

স্বল্প আলোতে উজ্জ্বল ছবি তুলতে গ্যালাক্সি সি৯ প্রো স্মার্টফোনে রয়েছে এফ ১.৯ অ্যাপারচারসম্পন্ন ১৬ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট এবং ব্যাক ক্যামেরা। এই স্মার্টফোনের উচ্চ রেজ্যুলেশনসম্পন্ন ক্যামেরা নিশ্চিত করবে উন্নত মানের সেলফি অভিজ্ঞতা এবং এর ডুয়েল এলইডি ফ্লাশ ছবিকে করবে আরও পরিস্কার।

বৃহৎ ডিসপ্লে

এই স্মার্টফোনে রয়েছে ৬ ইঞ্চির বিশাল ডিসপ্লে। সম্পূর্ণ এইচডি এসঅ্যামোলেড স্ক্রিনে গ্রাহকরা পাবেন অসাধারণ দেখার অভিজ্ঞতা। এর এই অসাধারণ স্ক্রিনটিতে রয়েছে ডুয়েল স্পিকার, যার ফলে ব্যবহারকারীরা পাবেন উচ্চ মানসম্পন্ন মাল্টিমিডিয়া ব্যবহারের অভিজ্ঞতা।

মনোমুগ্ধকর ডিজাইন

গ্যালাক্সি সি৯ প্রো একটি পরিপূর্ণ ডিজাইনের স্মার্টফোন। এটিতে রয়েছে সম্পূর্ণ মেটাল ইউনিবডি এবং এর পুরুত্ব মাত্র ৬.৯ মিমি। এক হাতে ধরে রাখার জন্য এই ডিভাইসটি খুবই আরামদায়ক। এটির ওজন মাত্র ১৮৮ গ্রাম, যা ৬ ইঞ্চির মতো বড় একটি ফোনের ক্ষেত্রে সত্যিই মুগ্ধকর।

দীর্ঘস্থায়ী ব্যাটারি

গ্যালাক্সি সি৯ প্রো-তে রয়েছে দ্রুত চার্জিং প্রযুক্তিসহ ৪,০০০ মিলি অ্যাম্পিয়ার আওয়ারের ব্যাটারি, যা ব্যবহারকারীর র্দীঘক্ষণ গেম খেলা এবং মাল্টি-মিডিয়াসহ আরও অনেক কিছুর ব্যবহার নিশ্চিত করে। এই ডিভাইসটি ইউএসবি টাইপ-সি সাপোর্ট করে, যা দ্রুততর ডাটা স্থানন্তর করতে সক্ষম। এতে রয়েছে দুটি সিম কার্ড ও একটি মাইক্রো এসডি কার্ড ব্যবহারের ব্যবস্থা। এই স্মার্টফোনটিতে আরও রয়েছে এস সিকিউর, এস পাওয়ার প্ল্যানিং এবং আল্ট্রা ডাটা সেভিং (ইউডিএস) ফিচার।

স্যামসাং ইলেকট্রনিক্স কোম্পানী লিমিটেড সম্পর্কে

অভিনব এবং দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা ও প্রযুক্তির মাধ্যমে স্যামসাং ইলেকট্রনিক্স কোঃ লিঃ বিশ্ব পরিবর্তনের অঙ্গীকার নিয়ে টিভি, স্মার্টফোন, পরিধানযোগ্য ডিভাইস, ট্যাবলেট, ক্যামেরা, ডিজিটাল অ্যাপ্লায়েন্স, প্রিন্টার, মেডিকেল সরঞ্জাম, নেটওয়ার্ক সিস্টেম, সেমিকন্ডাকটর এবং এলইডি সলিউশনে যুগান্তকারী সমাধান প্রদান করছে। স্মার্ট হোম এবং ডিজিটাল হেলথ ইনিশিয়েটিভ এর মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানটি “ইন্টারনেট অফ থিংস” এ অগ্রণী ভূমিকা পালন করছে। প্রতিষ্ঠানটিতে বিশ্বজুড়ে ৮৪টি দেশে ৪৯০,০০০ জন কর্মী কাজ করে এবং বাৎসরিক আয় ২৫০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।






সঙ্গতিপূর্ণ আরো খবর

  • এইচটিসির নতুন স্মার্টফোন ওয়ান এক্স১০
  • ফেসবুক ব্যবহারে দ্বিতীয় ঢাকা
  • বিনামূল্যে ওয়ার্কপ্লেস সেবা প্রদান করবে ফেসবুক
  • সকল এমপির ফেসবুক আইডি ভেরিফাইড হচ্ছে : তারানা হালিম
  • স্মার্টফোনের আসক্তি দূর করতে আসছে ‘লাইট ফোন’
  • ফেসবুক বন্ধের খবর সঠিক নয়
  • যে কারণে মধ্যরাত থেকে ছয় ঘন্টা বন্ধ থাকতে পারে ফেসবুক
  • হারিয়ে গেলেও সুরক্ষিত থাকবে ব্যক্তিগত তথ্য!