নেটপাটা অপসারন হয়নি সদর উপজেলার ব্রক্ষ্মরাজপুর ইউনিয়নের গোয়ালপোতা গ্রামের খালটির


ধুলিহর প্রতিনিধি :: আগামী ৭ অক্টোবরের মধ্যে জেলার সব নদ-নদী ও খালের অবৈধ নেট-পাটা ও বাধ অপসারনের নির্দেশ সাতক্ষীরার জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামাল।

গত ২২ শে সেপ্টেম্বর রবিবার বেলা ১১টার সময় জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে।জেলা রাজস্ব সম্মেলনের আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা,সহকারী কর কমিশনার(ভুমি)ও ইউনিয়ন উপ-সহকারী ভূমি কর্মকর্তাদের তিনি এই নির্দেশ দেন।জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামাল এসময় ৭ অক্টোবরের মধ্যে জলাবদ্ধতা নিরসনে সকল ধরনের বাধা অপসারন পূর্বক তার দপ্তরে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন।জেলাপ্রশাসক আরো বলেন নেট-পাটা অপসারনে যদি কেও গাফিলতি করে বা বাধা সৃষ্টি করে তবে তার বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার পাশাপাশি ডেঙ্গু প্রতিরোধে সবার আগে জলাবদ্ধতা নিরসন দরকার।

শুধুমাত্র ৭ অক্টোবর নয় এর পূর্বে জলাবদ্ধতা নিরসন ও ডেঙ্গু প্রতিরোধে একাধিক বার বিভিন্ন মাধ্যমে জনগনকে সতর্ক করার চেষ্টা করেছেন জেলা প্রশাসক এস এম মোস্তফা কামাল।কিন্তু জেলা প্রশাসক এর নির্দেশ কে অমান্য করে বিভিন্ন খালে নেট-পাটা বসিয়ে রেখেছে এক শ্রেনীর দুর্নীতি গ্রস্ত মানুষ।এমনি এক অনিয়ম ও দুর্নীতির চিত্র দেখা গেছে   সাতক্ষীরা সদর উপজেলা এর ব্রক্ষ্মরাজপুর  ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের  গোয়ালপোতা গ্রামের মাঝখান দিয়ে বয়ে যাওয়া এই খালটিতে।গোয়ালপোতায় যেয়ে  দেখা যায় খালটিতে  দফায় দফায় নেট বসানো হয়েছে। ফলে পানি অপসারণে বাধা প্রাপ্ত হচ্ছে। গ্রামটি বর্ষায় দীর্ঘদিন ধরে জলাবদ্ধ হয়ে পড়ে থাকে। এদিকে বেতনা নদীতে পলি পড়ে ভরাট হওয়ায় এলাকার আড়ুডাঙীর গেট বন্ধ হয়ে গেছে। ফলে এই গ্রামের জল এখন আড়ুডাঙীর গেট দিয়ে না সরে তালার শালিখা গেট দিয়ে পানি অপসারিত হয়। এব্যাপারে ওই গ্রামের স্থানীয় বাসিন্দা  মনিন্দ্রনাথ মন্ডল বলেন, আমরা সকলেই খুব ভালোভাবে বসবাস করছি।তবে খালে নেট – পাটা থাকায় তেমন কোন অসুবিধা হয় না।মনিন্দ্রনাথ মন্ডল আরো বলেন এড়ুখালীর গেট বন্ধ হয়েগেছে নদী ভরে যাওয়ায়, এখন আর এই গেট দিয়ে জল সরে না।আমরা এখন তালার শালিখার গেট দিয়ে জল সরাই।হাস্যজ্বল মুখে মনিন্দ্রনাথ মন্ডল বলেন এলাকার মানুষ এই নেটপাটা দিয়ে রেখেছে টুকটাক মাছ ও মারে, তবে এখানে মাছ তেমন পাওয়া যায় না।এই খালে তার কোন নেট- পাটা নেই, এবং তিনি এধরণের কাজ করেন না বলেন মনিন্দ্রনাথ মন্ডল। ৯ নং ওয়ার্ডের মেম্বর  কালিদাস মন্ডল বলেন, জেলা প্রশাসকের নির্দেশ সম্মন্ধে আমি জেনেছি। চিকিৎসা জনিত কারণে আমি ইন্ডিয়া তে থাকার কারনে এব্যাপারে কোন পদক্ষেপ নিতে পারিনাই।তবে কালই আমি চৌকিদার দার দ্বারা খালের নেটপাটা তুলে দিব।

এসময় উক্ত ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এর সাথে নেটওয়ার্কের সমস্যা জনিত কারনে মোবাইলে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।






সংযুক্তিমূলক সংবাদ ..

  • সাতক্ষীরায় ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স সপ্তাহ পালিত
  • মুক্তিযোদ্ধা বাবার নাম ভাঙ্গিয়ে সন্ত্রাসী লাল্টু বাবলু বাহিনীর অত্যাচার চরমে
  • আইডিএসইবি’র ৫দফা দাবী বাস্তবায়নের লক্ষ্যে সাতক্ষীরায় স্ব-স্ব কর্মস্থলে সার্ভেয়ারদের কালো ব্যাজ ধারন
  • মামলার স্বাক্ষী হওয়ায় মারপিট ও টাকা ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগ
  • সাতক্ষীরা জজশীপ ক্যান্টিনের শুভ উদ্বোধন
  • সাতক্ষীরা আলিয়া মাদ্রাসা কেন্দ্রে নজিরবিহীন পরীক্ষা অনুষ্ঠিত : ৪র্থ দিনে অনুপস্থিত ৫৭ জন
  • ‘ক্লিন সাতক্ষীরা গ্রিন সাতক্ষীরা বাস্তবায়নে দুর্নীতিই প্রধান অন্তরায়’ শীর্ষক বিতর্ক প্রতিযোগিতা উদ্বোধন
  • জাতীয় অধ্যাপক ডা. এম আর খানের স্মরণসভা ও মেডিকেল ভর্তিতে উত্তীর্ণদের সংবর্ধনা
  • Leave a Reply