মোবাইল বিস্ফোরণ থেকে রক্ষার কৌশল

সাতক্ষীরা নিউজ ডেস্ক :: বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে ও সোশ্যাল মিডিয়ায় সম্প্রতি স্মার্টফোন বিস্ফোরণের সংবাদ দেখতে পাওয়া যায়। কোথাও কোথাও স্মার্টফোন বিস্ফোরণে ব্যবহারকারীকে মারাত্মক আহত হওয়ার খবরও শুনতে পাওয়া যায়। যেহেতু এ ধরনের খবর আমাদেরকে নিয়মিত হতবাক করে তাই আমাদের নিজস্ব সচেতনতার মাধ্যমে বিস্ফোরণের হাত থেকে রক্ষা পেতে হবে। কয়েকটি কৌশল অবলম্বন করলে স্মার্টফোন বিস্ফোরণের হাত থেকে রেহাই পাওয়া যেতে পারে। চলুন কোন বিষয়গুলোকে প্রাধান্য দিলে এই বিস্ফোরণ থেকে রক্ষা পাওয়া যেতে পারে।

চার্জিং কেবল ও অ্যাডাপ্টার : স্মার্টফোন বিস্ফোরণ হয়ে থাকে মূলত ডিভাইসটির ব্যাটারি বিস্ফোরণের মধ্য দিয়ে। এজন্য স্মার্টফোন বা ট্যাবলেটে ব্যবহূত ব্যাটারি যাতে ভালো থাকে সে দিকে বেশ গুরুত্ব দিতে হবে আপনাকে। ট্যাবলেট কিংবা স্মার্টফোনের মতো মোবাইল ডিভাইস চার্জ দেওয়ার জন্য তৃতীয়পক্ষের কেবল কিংবা অ্যাডাপ্টার ব্যবহার করা এড়িয়ে চলতে হবে। অর্থাৎ নিরাপত্তার স্বার্থে প্রকৃত চার্জিং কেবল ও অ্যাডাপ্টার ব্যবহার করতে হবে।

ব্যাটারি : যেহেতু স্মার্টফোনের ব্যাটারিই বিস্ফোরণ হয়, তাই মোবাইল ডিভাইসের ব্যাটারি একটি নির্দিষ্ট সময় পর কার্যক্ষমতা হারিয়ে ফেলে। ব্যাটারি বদলানোর প্রয়োজন হলে তৃতীয় পক্ষের তৈরি ব্যাটারি লাগানো থেকে বিরত থাকতে হবে। অর্থাৎ যথাসম্ভব ডিভাইস নির্মাতা কোম্পানির সরবরাহকৃত অথবা অনুমোদিত ব্যাটারি ব্যবহার করতে হবে।

অতিরিক্ত চার্জ : যে কোনো মোবাইল ডিভাইস ঘন ঘন চার্জে দেওয়া ঠিক নয়। কারণ বেশির ভাগ ট্যাবলেট কিংবা স্মার্টফোন ডিভাইসে লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারি ব্যবহার করা হয়। ঘন ঘন চার্জ দিলে ব্যাটারি কার্যক্ষমতা দ্রুত কমে যায় এবং উত্তপ্ত হয়ে অগ্নিদুর্ঘটনার ঝুঁকি বাড়ে।

দাহ্য বস্তুর কাছে ফোন রাখা : ট্যাবলেট, স্মার্টফোন কিংবা অন্যান্য ডিভাইস অগ্নিদাহ্য বস্তু যেমন আসবাবপত্র, বিছানাপত্র ও পেপারের পাশে রাখা এড়িয়ে চলুন। এ ধরনের বস্তুর ওপর ফোন রাখলে বিস্ফোরিত হয়ে অগ্নি দুর্ঘটনার ঝুঁকি বেড়ে যায়।

বালিশের নিচে ফোন রাখা : অনেকেই ট্যাবলেট কিংবা স্মার্টফোনের মতো মোবাইল ডিভাইস চার্জে দিয়ে ঘুমায়। ঘুমাতে যাওয়ার আগে চার্জে লাগিয়ে ফোন বা অন্য কোনো মোবাইল ডিভাইস বালিশের নিচে রাখা এড়িয়ে চলুন। কোনো কারণে ডিভাইস বিস্ফোরিত হয়ে আগুন ধরে গেলে তা জীবননাশের কারণ হতে পারে।

সূর্যের আলোয় ফোন রাখা : সরাসরি সূর্যের আলো পড়ে, এমন স্থানে দীর্ঘ সময় ফোন বা অন্য কোনো ডিভাইস রাখবেন না। এতে ব্যাটারি অতিরিক্ত উত্তপ্ত হয়ে বিস্ফোরিত হতে পারে এবং অগ্নি দুর্ঘটনার ঝুঁকি বাড়ে।

অনুমোদিত সার্ভিস সেন্টারে ফোন মেরামত না করা : কোনো কারণে মোবাইল কিংবা অন্য কোনো ব্যাটারি চালিত ডিভাইস সারাইয়ের প্রয়োজন পড়লে তা নির্মাতা কোম্পানি অনুমোদিত সার্ভিস সেন্টার থেকে করিয়ে নিন। যেখানে সেখানে ব্যাটারি চালিত ডিভাইস সারাইয়ের ফলে বিস্ফোরিত হওয়ার ঝুঁকি বাড়ে।

ডিভাইসের ওপর আরেক ডিভাইস রেখে চার্জ করা : অনেককেই একসঙ্গে একাধিক মোবাইল ডিভাইস চার্জে দিতে দেখা যায় এবং এক্ষেত্রে এক ডিভাইসের ওপর আরেক ডিভাইস রাখা হয়। ব্যাটারি চালিত ডিভাইস চার্জে দেওয়ার সময় এ ধরনের অনুশীলন এড়িয়ে চলুন।

চার্জে দেওয়ার সময় কাভার খুলে রাখুন : ট্যাবলেট বা স্মার্টফোনের মতো ডিভাইস চার্জে দেওয়ার সময় কাভার খুলে রাখা নিরাপদ। এর ফলে চার্জে থাকা অবস্থায় ডিভাইসের ব্যাটারি উত্তপ্ত হবে না এবং বিস্ফোরিত হওয়ার ঝুঁকি কমবে।






সংযুক্তিমূলক সংবাদ ..

  • নাগরিকদের তথ্য সংগ্রহ হবে অ্যাপসে
  • পলিথিন বর্জ্য থেকে পেট্রোল ডিজেল এলপি গ্যাস
  • যেভাবে পুরনো থেকে নতুন স্মার্টফোনে ডেটা ট্রান্সফার করবেন
  • নাশকতা দমনে আসছে ডাটা ইন্টারসেপ্টর
  • অনলাইন ব্যাংকিং করেন, ভুলেও এই অ্যাপ নয়
  • বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির উন্নয়ন ছাড়া দেশের অগ্রগতি সম্ভব নয়: বিসিএসআইআর এর শীর্ষক সেমিনারে-ডা. রুহুল হক এমপি
  • বিদেশি চ্যানেল, ফেসবুক, গুগল, ইউটিউবে কর আরোপ
  • Leave a Reply