সাতক্ষীরায় জননেতা এমপি রবিকে জড়িয়ে সংবাদ প্রকাশ করায় ক্ষোভে জেলাব্যাপী প্রতিবাদ ও নিন্দার ঝড় ॥

স্টাফ রিপোর্টার:
সাতক্ষীরা শহরের মুনজিতপুর সৈয়দ হায়দার আলী তোতার ভাড়াটিয়া বাড়িতে জুয়া (তাস) খেলার ঘটনায় পুলিশের অভিযানকে কেন্দ্র করে সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সদর -০২ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর মোস্তাক আহমেদ রবিকে জড়িয়ে পরিকল্পিতভাবে রাজনৈতিক ও সামাজিকভাবে ভাবমুর্তি নষ্ট করতে উদ্দেশ্য প্রণোদিত হয়ে স্থানীয় দৈনিক পত্রদূত ও দৈনিক কালের চিত্র পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশিত হওয়ায় সাতক্ষীরা জেলাব্যাপী প্রতিবাদ ও নিন্দার ঝড় বইছে। ক্ষোভে ফুসে উঠেছে সাতক্ষীরার সাধারণ জনগণ। বুধবার ২৫ সেপ্টেম্বর পত্রদূত অনলাইনে ঐ সংবাদ দেখার পর থেকে এবং ২৫ সেপ্টেম্বর দুটি পত্রিকায় উদ্দেশ্য প্রণোদিত সংবাদ দেখার পর আরো ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে সাতক্ষীরাবাসী। আওয়ামী লীগের দলীয় নেতা কর্মী ও সাধারণ জনগণ সরেজমিনে সাংসদের বাসভবনে প্রতিবাদ ও প্রতিকারের জন্য এমপি রবির সাথে সাক্ষাত করেন।

এসময় বক্তব্য রাখেন সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আবুল খায়ের সরদার, দপ্তর সম্পাদক শেখ হারুন উর রশিদ, প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক শেখ নুরুল হক, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. শহিদুল ইসলাম, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এস.এম শওকত হোসেন, সহ-সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান মো. আসাদুজ্জামান অসলে, সাধারণ সম্পাদক মো. শাহাজান আলী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শেখ আব্দুর রশিদ, জেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি ছাইফুল করিম সাবু, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ আবু সায়ীদ, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পৌর কাউন্সিলর জ্যোৎনা আরা, জেলা বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি মকসুমুল হাকিম, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রশিদ, পৌর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী আক্তার হোসেন, সহ-দপ্তর সম্পাদক জিয়াউর বিন সেলিম যাদু, আগরদাঁড়ি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি হাবিবুর রহমান, জেলা কৃষকলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এস.এম রেজাউল ইসলাম, বাঁশদহা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাস্টার মফিজুর রহমান প্রমুখ।

এসময় দলীয় নেতা কর্মীরা বলেন, ‘যারা দেশ ও জাতি এবং আওয়ামী লীগের শত্রু। যারা দেশের স্বাধীনতা চাইনি। সেই রাজাকারের বংশধরেরা গভীর চক্রান্ত ও ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে এ দেশ এবং আওয়ামী লীগের ভাবমুর্তি নষ্ট করতে আবারও চক্রটি মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে। সমাজে এদের উত্থান কিভাবে হল ? কিভাকে জিরো থেকে এত অর্থ সম্পদের মালিক বনে গেল। তা সাতক্ষীরাবাসীর অজানা নয়। সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দকে এককাতারে এনে শান্তি ও ঐক্য তৈরী করে দৃষ্ট্রান্ত স্থাপন করেছেন জননেতা এমপি রবি। তার সময়ে সাতক্ষীরায় অভূর্তপূর্ব উন্নয়নে ইর্ষান্বিত হয়ে উদোর পিন্ডি বুদোর ঘাড়ে চাপাতে মরিয়া একটি চক্র। এমপি রবির রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ মাছ না পেয়ে ছিপে কামড় দেওয়ার পায়তারা করছে। মহান আল্লাহর রহমতে দল ও জনগণ থেকে জননেতা এমপি রবিকে বিচ্ছিন্ন করা যাবেনা। কোন ষড়যন্ত্র মেনে নেবেনা সাতক্ষীরাবাসী। দাঁতভাঙ্গা জবাব দিতে ষড়যন্ত্রকারীদের বিরুদ্ধে স্বোচ্ছার সাতক্ষীরার সাধারণ জনগণ। ####






সংযুক্তিমূলক সংবাদ ..

  • কলারোয়ায় ব্যাবস্থাপত্র ছাড়া এন্টিবায়োটিক বিক্রয় প্রতিরোধে জনসচেতনামূলক সভা
  • সিভিল সার্জনের সাথে প্রাইভেট হাসপাতাল ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনস্টিক ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন মতবিনিময়
  • ঝাউডাঙ্গায় চক্ষু চিকিৎসা শিবির অনুষ্ঠিত
  • তেঁতুলিয়ায় আদালতের স্টে অর্ডার অমান্য করে গাছ কর্তনের অভিযোগ
  • গদাইপুর মৌলভী আব্দুল লতিফ কলেজে দুদক চেয়ারম্যানের পিতার মৃত্যু বার্ষিকী পালন
  • আশাশুনি উপজেলা পরিষদের সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত
  • তালায় আব্দুল করিম সভাপতি ও রনিকে সম্পাদক করে ইউনিয়ন যুবলীগের কমিটি ঘোষনা
  • নেটপাটা অপসারন হয়নি সদর উপজেলার ব্রক্ষ্মরাজপুর ইউনিয়নের গোয়ালপোতা গ্রামের খালটির
  • Leave a Reply