আশাশুনিতে মৌলভী আব্দুল লতিফ কলেজের অগ্রযাত্রা প্রশংসা কুড়িয়েছে

জি এম মুজিবুর রহমান, আশাশুনি (সাতক্ষীরা) ঃ আশাশুনি উপজেলায় নব-প্রতিষ্ঠিত মৌলভী আব্দুল লতিফ কলেজ প্রতিষ্ঠার পর থেকে স্বল্প সময়ের অগ্রযাত্রা প্রশংসিত হচ্ছে। অগ্রযাত্রা অব্যাহত থাকলে অদূর ভবিষ্যতে কলেজটি প্রত্যান্ত এলাকার মানুষের কল্যাণে নিবেদিত হয়ে উঠতে সক্ষম হবে বলে সংশ্লিষ্টদের মনে অদম্য উৎসাহ বিরাজ করছে।

খাজরা ইউনিয়নের গদাইপুর গ্রামে ২০১৭ সালে কলেজটি স্থাপিত হয়। দুর্নীতি দমন কমিশনের চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ চৌধুরীর পিতা মরহুম মৌলভী আব্দুল লতিফ সাহেবের নামানুসারে কলেজের নামকরণ করা হয়েছে ‘মৌলভী আব্দুল লতিফ কলেজ’। শুরুতে কলেজের নামে ১.০০ একর জমি রেজিষ্ট্রেশন করা হয়। পরবর্তীতে আরও সাড়ে ৩ বিঘা জমি দেওয়া হয়েছে। জমির উপর অফিস কক্ষসহ ৭টি ক্লাস রুম সিমেন্টসিড বিশিষ্ট কলেজ ঘর নির্মান করা হয়েছে। প্রতিষ্ঠার পর থেকে কলেজকে দ্রুত বাস্তাবায়নের জন্য কার্যক্রম হাতে নেওয়া হয়। এরই ফলশ্রুতিতে ২৫/০৯/২০১৮ তাং কলেজ স্থাপনের অনুমতি প্রদান করা হয়। পাঠদানের অনুমতি মেলে ২৫/০৪/১৯ তাং। ক্লাশ শুরু করা হয় ০১/০৭/১৯ তাং। ছাত্রছাত্রী ভর্তি করা হয়েছে ১৬৮ জন। যা ইটিসি পেয়ে ২০০ জন হতে পারে। বর্তমানে শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর ইইডি সাতক্ষীরা কলেজ ক্যাম্পাসে ৪ তলা বিশিষ্ট ভবনের ১ম তলার একাডেমীক ভবন নির্মান কাজ শুরু করেছে। রাজস্ব বাজেটের আ্ওতায় প্রকল্প ব্যয় বরাদ্দ হয়েছে ৮০ লক্ষ ৭৫ হাজার টাকা। পরবর্তীতে ভবনের উপরে উর্ধমুখী সম্প্রসারণ কাজ করা হবে। কলেজে যাতয়াতের সংযোগ সড়ক হিসাবে বিবেচিত গদাইপুর মেইন সড়ক হতে ঘুঘুমারী স্কুল পর্যন্ত সড়ক পাকাকরণ কাজ ইতিমধ্যে শুরু হয়েছে। কলেজ থেকে পাশ^বর্তী ৩টি কলেজের দূরত্ব ১২ থেকে ১৪ কিঃমিঃ। কলেজে ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীরা গদাইপুর, তুয়ারডাঙ্গা, বামনডাঙ্গা, ডুমুরপোতা, নড়েরাবাদ, মুরারীকাটি, বাইনতলা, মাদিয়া, হেতাইলবুনিয়া, হেতাইলখালী, গাতিরমহল, ঘুঘুমারি, নয়াবাদ, ফটিকখালী, সুরেরাবাদ, খালিয়া, পারিশামারী, দেয়াবর্ষিয়া, পিরোজপুর, গোয়ালডাঙ্গা, ঘাষটিয়া, জেলেখালী, কাকবাসিয়া, কাপসন্ডা, চেউটিয়া, আনুলিয়া, চেচুয়া, কোলা, বলাবাড়িয়া, একসরা, বল্লভপুর, গাইয়াখালী প্রভৃতি গ্রাম থেকে ভর্তি হয়েছে। কলেজের নিকবর্তী হাই স্কুল ও মাদরাসাগুলোর মধ্যে পারিশামারী, বাইনতলা, ত্রয়োদশ পল্লী, ইউনাইটেড খাজরা, গদাইপুর, বিছট, তুয়ারডাঙ্গা, বলাবাড়িয়া, পুইজালা, গোয়ালডাঙ্গা, বড়দল বালিকা, কাকবাসিয়া বঙ্গবন্ধু মাধ্যমিক বিদ্যালয় এবং চেউটিয়া ও মদিনাতুল উলুম মাদারাসা রয়েছে। কলেজ পরিচালনা পর্ষদ কর্তৃক পরিচালিত কলেজটির অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত) দায়িত্বে আছেন, শাহানারা বেগম। পাঠদানের অনুমতির ৫ মাসের মধ্যে এবং ক্লাস পরিচালনার ৩ মাসের মধ্যে ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীদের নিয়ে প্রাপ্য সংখ্যক শিক্ষক-কর্মচারী কঠোর ও সুষ্ঠু পাঠদানের মাধ্যমে কলেজকে সুন্দর পরিবেশের মধ্যে সংগঠিত করতে সক্ষম হয়েছেন। কলেজের জমি বৃদ্ধি করা, ক্লাস রুমকে স্বল্প পরিসরে হলেও সুসজ্জিত করা, নিয়মিত পাঠ দান, সুশৃংখল পরিবেশ বজায় রাখা, শিক্ষা মন্ত্রণালয় তথা সরকারের সময়ে সময়ে নির্দেশনা বাস্তবায়নে সফলতা আর্জন করা হয়েছে। নতুন প্রতিষ্ঠিত প্রতিষ্ঠান এতদ্রুত এভাবে সফলতার দিকে এগিয়ে নেওয়া সত্যি প্রশংসা অর্জনে সক্ষম হয়েছে। কলেজের নাম যার নামে নিবন্ধিত হয়েছে, সেই সুন্দর চরিত্রের, দুর্নীতিমুক্ত মহৎ ব্যক্তিটির নামের সুনাম যেন অব্যাহত রাখা যায় সেদিনে সতর্ক দৃষ্টি রেখে প্রতিষ্ঠানটি পরিচালনায় চেষ্টা করা হচ্ছে। এজন্য কলেজের অগ্রগতি ও সুখ্যাতি এলাকার মানুষকে আশান্বিত করে তুলেছে। তারা কলেজের সনসন অগ্রগতি অব্যাহত রাখতে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষসহ সকলের সহযোগিতা কামনা করেছেন। ####


বুধহাটায় চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা ও দেয়াল পত্রিকা প্রকাশ

জি এম মুজিবুর রহমান, আশাশুনি (সাতক্ষীরা) ঃ আশাশুনি উপজেলার বুধহাটা ইউনিয়নে এসকেএস ফাউন্ডেশনের ম্যাক্সনিউট্রিওয়াশ প্রকল্পের আওতায় চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা ও দেয়াল পত্রিকা তৈরি করা হয়েছে। রবিবার বুধহাটার মধ্য চাপড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

ম্যাক্সনিউট্রিওয়াশ প্রকল্প কর্তৃক বাস্তবায়িত স্কুলের পরিবেশকে স্বাস্থ্য সম্মত করার লক্ষ্যে স্কুলের ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা ও লেখা প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিযোগিতায় অংশ গ্রহনকারীদের মধ্যে থেকে নির্বাচিত চিত্র ও লেখা নিয়ে স্কুলে “স্বাস্থ্য সম্মত স্কুল” শিরোনামে দেয়াল পত্রিকা তৈরী করা হয়। এছাড়া ল্যাট্রিন কিভাবে পরিস্কার পরিচ্ছন্ন করা ও রাখা যায় তা শিশুদের বাস্তবে দেখানো হয়। সবশেষে প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলেদেন এসএমসি সদস্য নাজমুল আহসান এবং প্রধান শিক্ষক মোঃ মোদাচ্ছের আলি। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন, প্রকল্পের ইউনিয়ন ফ্যাসিলিটেটর অরুন কুমার সরকার।

বুধহাটার বিল্লালের মা ও বোন দু’ মাস উধাও!

জি এম মুজিবুর রহমান, আশাশুনি (সাতক্ষীরা) ঃ আশাশুনি উপজেলার বুধহাটা গ্রামের বিল্লাল হোসেনের মা ও বোন ৩ ছেলেমেয়েকে নিয়ে প্রায় দু’ মাস উধাও হয়ে গেছে। অনেক খোজাখুঁজি করেও তাদের কোন সন্ধান পায়নি পরিবারের সদস্যরা।

আশাশুনির কচুয়া গ্রামের মোফাজ্জেল সরদারের কন্যা নুর নাহার খাতুন (৪০), তার কন্যা রাইমা খাতুন (২৫) রাইমার ২ পুত্র ও ১ কনাকে নিয়ে গত কোরবাণির ঈদের এক মাস আগে বাড়ি থেকে উধাও হয়ে যায়। রাইমার স্বামী আমিনুরও সেই থেকে উধাও রয়েছে। তাদের মোবাইল নম্বর বন্ধ। তারা এ পর্যন্ত কারো সাথে যোগাযোগ করেনি। পরিবারের লোকজন তাদেরকে অনেক খোজাখুজি করেও কোন সন্ধান পায়নি। তারা বাড়ি থেকে উধাও হওয়ার পর থেকে বিল্লাল অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে স্থানীয় ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়। ক্লিনিকে ১০ দিন ভর্তি ছিল। এখনো সে স্বাভাবিক নয়। কোন ব্যক্তি তাদের সন্ধান পেলে ০১৪০৬২৭১৯৫০ নম্বরে যোগাযোগ করতে পরিবারের পক্ষ থেকে অনুরোধ জানান হয়েছে। ####

আশাশুনিতে গ্রেফতারী পরোয়ানর আাসামী গ্রেফতার

জি এম মুজিবুর রহমান, আশাশুনি (সাতক্ষীরা) ঃ আশাশুনি থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে এক ওয়ারেন্টের আসামী গ্রেফতার করেছে। আসামীকে রবিবার আদালতে প্রেরন করা হয়েছে। আশাশুনি থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আবদুস সালাম এর নেতৃত্বে এসআই বিজন কুমার সরকার অভিযান চালিয়ে নাঃশিঃ-২৯৪/১৯ (ওয়ারেন্ট) আসামী বাগালী গ্রামের ইসহাক আলি গাজীর স্ত্রী হাফিজা খাতুনকে গ্রেফতার করেন। ####

বুধহাটায় ল্যাট্রিন সহায়তা প্রদান কার্ড বিতরণ

জি এম মুজিবুর রহমান, আশাশুনি (সাতক্ষীরা) ঃ আশাশুনি উপজেলার বুধহাটায় হতদরিদ্র পরিবারের মাঝে ল্যট্রিন সহায় প্রদান কার্ড বিতরণ করা হয়েছে। রবিবার বুধহাটা ইউনিয়ন পরিষদ চত্বরে কার্ড বিতরণ করা হয়। এস কে এস ফাউন্ডেশন ম্যাক্সনিউট্রিওয়াশ প্রকল্পের আওতায় পরিবেশকে স্বাস্থ্য সম্মত করার লক্ষ্যে বাস্তবায়িত কার্যক্রমের অংশ হিসাবে ইউনিয়নের বিভিন্ন ওয়ার্ডের দরিদ্র ও হতদরিদ্র পরিবারের মাঝে ল্যাট্রিন সহায়তা প্রদান কার্ড তুলে দেওয়া হয়। ১৫টি পরিবারের মাঝে সহায়তা প্রদান কার্ড তুলে দেন বুধহাটা ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান আলহাজ¦ মোঃ সফিউল ইসলাম খোকন ও ৭ নং ওয়ার্ড মেম্বার শীষ মোহাম্মদ জেরি। ####

কাদাকাটিতে ১৬ দলীয় মিনি ফুটবল টুর্ণামেন্টের ২য় রাউন্ডের ২য় খেলা অনুষ্ঠিত

জি এম মুজিবুর রহমান, আশাশুনি (সাতক্ষীরা) : আশাশুনি উপজেলার কাদাকাটি ইউনিয়নে ১৬ দলীয় মিনি ফুটবল টুর্ণামেন্টের ২য় রাউন্ডের ২য় খেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রবিবার বিকালে কাদাকাটি হিন্দু পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে এ খেলা অনুষ্ঠিত হয়। কাদাকাটি উত্তর পাড়া রাখাল রাজা যুব সংঘের আয়োজনে, খেলায় কুলপোতা ফুটবল একাদশ ও যদুয়ারডাঙ্গা ফুটবল একাদশ মুখোমুখি হয়। নির্ধারিত সময়ে গোলশূণ্য ড্র হলে খেলা টাইব্রেকারে গড়ায়। টাইব্রেকারে যদুয়ারডাঙ্গা ৩-২ গোলের ব্যবধানে জয়লাভ করে। খেলা পরিচালনা করেন সাজু। সোমবার একই মাঠে ২য় পর্বের ৩য় খেলায় টেংরাখালী ও কাদাকাটি দক্ষিণ কালিবাড়ি ফুটবল একাদশ মুখোমুখি হবে। খেলায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বিমল কৃষ্ণ গাইন। বিশেষ অতিথি ছিলেন আঃ সোবহান সরদার। #####






সংযুক্তিমূলক সংবাদ ..

  • আশাশুনি প্রেস ক্লাবের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন
  • আশাশুনি প্রেস ক্লাবের সাধারণ পরিষদের সভা অনুষ্ঠিত
  • আশাশুনি উপজেলা আওয়ামীলীগের মূলতবি বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত
  • বুধহাটা মন্দিরের জমি ও ঘর চিহ্নিতকরণ
  • আশাশুনিতে পরিবার কল্যাণ সহকারী সমিতির প্রতিবাদ কর্মসূচি
  • আশাশুনিতে উপজেলা পর্যায়ে বিজ্ঞান বিষয়ক কুইজ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত
  • বড়দলে ৮ দলীয় ফুটবল টুর্ণামেন্টে বুড়িয়া ফুটবল একাদশ চ্যাম্পিয়ন
  • আশাশুনিতে ডাকাত হাবিবুল্লাহ গ্রেফতার
  • Leave a Reply