সাতক্ষীরার মাধবকাটি বাজারে দীর্ঘদিনের ভোগদলীয় সম্পত্তি অবৈধভাবে দখলের উদ্দেশ্যে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি ও খুন জখমের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি : সাতক্ষীরার মাধবকাটি বাজার সংলগ্ন এলাকায় দীর্ঘদিনের ভোগদলীয় সম্পত্তি অবৈধভাবে দখলের উদ্দেশ্যে একাধিক মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি, খুন জখমের হুমকি ও মিথ্যা ভিত্তিহীন সংবাদ সম্মেলনের অভিযোগ উঠেছে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে। সোমবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন সদর উপজেলার মাধবকাটি বাজার এলাকার ইলাহি বক্স সরদারের স্ত্রী তানজিলা খাতুন।
তিনি বলেন, বিগত ১৯৮৯ সালে মাধবকাটি মৌজায় সাবেক ৪৪২ দাগে ২৫ শতক জমি ক্রয় করি। এর মধ্যে কিছু সম্পত্তি বিক্রয় করি। আর বাকী ১১ শতক সম্পত্তিতে শান্তি পূর্ণভাবে গাছপালা লাগিয়ে, বসতঘর, দোকানঘর নির্মাণ করে ভোগদখল করে আসছিলাম। কিন্তু তার প্রায় ১০বছর পর ওয়াজিয়ারের কন্যা হাসিনা এবং জামাতা ইনছাফ আলী মোড়ল তার শ্বশুরের কাছ থেকে একই দাগে ৩ শতক সম্পত্তি পৈত্রিক সূত্রে দানপত্রে প্রাপ্ত হয়েছেন মর্মে দাবি করে আমাদের ভোগদখলীয় সম্পত্তি থেকে ৩ শতক সম্পত্তি অবৈধভাবে দখলের ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়। তার দাবিকৃত ১২৭ খতিয়ানের জমি পাওয়ার কথা থাকলেও সেখানে ওই নামে কোন খতিয়ান নেই। এরাই জেরে তারা বিভিন্ন দপ্তরে মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে আমাদের হয়রানি করে যাচ্ছে। ইতোমধ্যে একাধিকবার ঝাউডাঙ্গা, সদর থানাসহ বিভিন্ন স্থানে শালিশী বৈঠক হলেও সেখানে উলে¬খিত হাসিনা এবং তার স্বামী কোন বৈধ কাগজপত্র উপস্থাপন করতে পারেনি। উক্ত সম্পত্তি নিয়ে বিগত ২০১০ সালের সাতক্ষীরা সিনিয়র সহকারি জজ আদালত মামলা হলে তাদের ওই জমিতে প্রবেশে চিরস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা জারি করেন। এরপরও উলে¬খিত হাসিনা ও তার স্বামী কৌশলে আমাদের দখলীয় সম্পত্তি দখল করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। আমাদের একমাত্র পুত্র দেশের বাইরে থাকায় আমার অবিবাহিত কন্যা ময়নাসহ ৩জনকে নিয়ে বাড়িতে আমরা বসবাস করি। অন্যদিকে হাছিনাদের ৪টি পুত্র সন্তান বাড়িতে থাকায় তারা প্রায় ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে আমাদের বাড়িতে প্রবেশ করে মারপিটসহ খুন জখমের হুমকি ধামকি প্রদর্শন করে। এছাড়া আমাদের বিরুদ্ধে ১০টি মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করে। ইতোমধ্যে ১০টি মামলার প্রতিটি রায় আমাদের পক্ষে রয়েছে।
তিনি আরো বলেন, আমার স্বামী ও আমি গুরুতর অসুস্থ। ভারত থেকে তাকে ফেরত পাঠিয়েছে আমার স্বামীকে। গত ২৯/৮/১৯ তারিখে ইনছাফ আলী ও তার স্ত্রী হাসিনা খাতুনসহ ৮/১০ জন আমাদের সম্পত্তি থেকে গাছ কাটতে গেলে এতে আমরা বাধা দিলে তারা আমাদের মারপিট করতে উদ্যাত হয় এবং অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে। এঘটনায় সাতক্ষীরা সদর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে তারা আরো ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে এবং আমাদের ভিটেবাড়ি ও দোকানপাট থেকে জোরপূর্বক উচ্ছেদের হুমকি ধামকি প্রদান করে। এরই জেরে গত ৮/৯/২০১৯ তারিখে আবারো ইনছাফ আলীসহ ১০/১৫ জন বেআইনী জনতায় দলবদ্ধ হয়ে আমাদের বাড়িতে প্রবেশ করে মারপিট করে খুন জখমের হুমকি প্রদর্শন করে। অথচ ওই ঘটনায় উল্টো আমার স্বামী, আমাকে, কন্যা ময়না, সদ্য বিদেশ ফেরত জামাতা শেখ শাহাজান ও মাধবকাটি বাজার কমিটির সভাপতির বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করে একটি কাল্পনিক সংবাদ সম্মেলন করে। যা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। এমতাবস্থায় তিনি উক্ত অবৈধদখল দারদের কবল থেকে তাদের সম্পত্তি রক্ষা এবং জীবনের নিরাপত্তার দাবিতে সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার সুপারসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। #####






সংযুক্তিমূলক সংবাদ ..

  • কলারোয়া বেত্রবতী হাইস্কুলে নারী নির্যাতন, বাল্যবিবাহ, ইভটিজিং ও মানব পাচার প্রতিরোধে জনসচেতনতামূলক ক্যাম্পেইন
  • কলারোয়া বেত্রবতী হাইস্কুলে বীর মুক্তিযোদ্ধার স্মৃতিচারণ : পালপাড়ার গণহত্যায় নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা
  • কলারোয়ায় সীমান্ত পিলার এলাকা পরিদর্শনে ভূমি দপ্তরের বাংলাদেশ-ভারত শীর্ষ কর্তারা
  • কলারোয়া বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারন সভা অনু্ষ্ঠিত
  • কলারোয়া পূজা উদযাপন পরিষদের সাথে ওসির মতবিনিময়
  • কলারোয়ায় নাগরিক অধিকার বাস্তবায়ন কমিটির সভা অনুষ্ঠিত
  • কলারোয়ায় যুবলীগ সভাপতি শাহাজাদা কর্তৃক জামায়াত নেতার কাছ থেকে অর্থের বিনিময়ে রেকর্ডীয় সম্পত্তি জোর পূর্বক দখলের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন
  • Leave a Reply