বুধহাটায় ঈদগাহ ও খেলার মাঠে ভবন নির্মান বন্দের দাবীতে মানববন্ধন

আশাশুনি (সাতক্ষীরা)প্রতিনিধি :
আশাশুনি উপজেলার ২২ নং বুধহাটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বহু গাছ কেটে, খেলার মাঠ বন্ধ করে পশ্চিম দুয়ারী নতুন বিল্ডিং নির্মানের উদ্যোগের প্রতিবাদে এবং উত্তর পাশে ঘর নির্মানের দাবীতে এলাকাবাসী বিশাল মানববন্ধন করেছে। শুক্রবার দুপুরে স্কুলের সামনের সড়কে এ মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়। বুধহাটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতল বিশিষ্ট দক্ষিণ দুয়ারীভাবে পুরাতন ভবন রয়েছে। ছাত্রছাত্রীদের ক্লাশের স্থান সংকুলান না হওয়ায় সরকারি ভাবে আরেকটি দ্বিতল ভবন নির্মানের প্রকল্প অনুমোদিত হয়েছে। বিদ্যালয়ের সামনে কোন রকমে খেলা করার মত একটি ছোট মাঠ রয়েছে। এ মাঠে পশ্চিম পাশে ফোরকানিয়া মাদরাসা অবস্থিত।

মাদরাসার সামনে ঈদগাহ ময়দান। দক্ষিণ পাশে সরকারি সড়ক। মাঠের একটি বড় অংশ দখলে নিয়ে মাঠের পূর্ব পাশে পশ্চিম দুয়ারীভাবে নতুন ভবন নির্মানের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এব্যাপারে মাননীয় জেলা প্রশাসক বরাবর ম্যানেজিং কমিটির সদস্য ও এলাকাবাসী প্রতিকারের আবেদন করলে ২ জুলাই ডিপিইও’কে জরুরী ভিত্তিতে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নিতে আদেশ করেন। তদন্ত অনুষ্ঠানের আগেই মাঠ নষ্ট করে এবং সাথে সাথে ১৩/১৪টি বৃক্ষ নিধন ও অর্ধ শতাধিক বছরের দু’টি সবার প্রিয় বিলাতী তালগাছ নিধন করে বিল্ডিং নির্মানের জন্য লে-আউট ও কাজের জন্য বালু আনা হয়েছে। এতে এলাকার মানুষ ফুসে উঠেছেন। এখানে ভবন নির্মান হলে মাঠে খেলা ধুলার সুযোগ নষ্ট হবে।

এলাকার মানুষের দীর্ঘদিনের ঈদগাহ ময়দানও জৌলুস হারিয়ে মুসল্লি ধারণ অসম্ভব হয়ে পড়বে। বার্ষিক ওয়াজ মাহফিলের স্থান সংকুলান অসম্ভব হবে। মানুষ মারা গেলে এ মাঠেই জানাযা হয়ে থাকে সেটিও কষ্টকর হবে। এলাকাবাসীর দাবী পশ্চিমমুখো সদর করে বিল্ডিং নির্মান করে সকল ব্যাপারে ক্ষতি না করে স্কুলের পুরাতন ভবনের পূর্ব পাশে অবস্থিত ওয়াশ ব্লক ভেঙ্গে দিয়ে সেখানে বিল্ডিং করলে সবদিক দিয়ে ভাল হবে। স্কুলের জন্য পশ্চিম পাশে ল্যাট্রিন ব্যবস্থা আছে। প্রয়োজনে যেকোন সুবিধামত স্থানে আবারও ল্যাট্রিনের ব্যবস্থা করা যাবে।

যেখানে স্কুল প্রতিষ্ঠার পূর্বে খেলার মাঠ থাকা বাধ্যতামূলক সেখানে খেলার মাঠ বন্দ করে ভবন নির্মানের উদ্যোগকে এলাকাবাসী মেনে নিতে পারছেনা। এলাকার হাজার হাজার পুরুষ-মহিলা, অভিভাবক, ছাত্রছাত্রীসহ সর্বস্তরের মানুষ এ মানববন্ধনে অংশ নেয়। মানববন্ধন চলাকালে বীর মুক্তিযোদ্ধা আঃ গফুর, এসএমসি সভাপতি আঃ হামিদ, মসজিদের ইমাম মাওঃ আঃ ওহাব, জমিদাতা শফিকুল ইসলাম গাইন, ফারুক হোসেন, ইসমাইল হোসেন, আঃ রহমান, আল মামুন, আজহারুল ইসলাম, জয়নাল, ফারুক, আঃ মাজেদ, রাবেয়া খাতুন, সেলিনা খাতুন, শাহিন, আঃ আলিম, সাজু, মধু প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

এলাকার ছেলেমেয়েদের জন্য একমাত্র খেলার মাঠ, সুশোভিত বৃক্ষরাজি, ক্রমবর্ধমান মুসল্লি সমৃদ্ধ ঈদগাহ ময়দান বিনষ্ট না করে কিভাবে বিকল্প স্থানে নতুন ভবন নির্মান করা যায়, বিষয়টি তদন্তপূর্বক কার্যকর পদক্ষেপ নিতে মানবন্ধনকারীরা মাননীয় এমপি মহোদয়, জেলা প্রশাসক মহোদয়, উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারসহ উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন মানবনন্ধনকারীরা। ####






সংযুক্তিমূলক সংবাদ ..

  • আশাশুনিতে ১৮টি গৃহ নির্মান সম্পন্ন ॥ প্রধানমন্ত্রী উদ্বোধন করবেন ১৩ অক্টোবর
  • কুল্যার রুহুল আমিন ৭০ বছর বয়সেও বয়স্ক ভাতার সুযোগ পাননি
  • গুনাকরকাটি টু তেঁতুলিয়া সড়কে ভাঙ্গন রোধে উদ্যোগ নেয়নি কেউ
  • বড়দল ইউনিয়ন আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগ গঠন
  • আশাশুনিতে সংযোগ তৈরি বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত
  • কুল্যায় চেয়ারম্যান প্রার্থী সালামের মতবিনিময় সভা
  • আশাশুনিতে মা ইলিশ ধারা ও ক্রয়- বিক্রয় বন্দ সংক্রান্ত প্রচার
  • কাদাকাটিতে শারদীয় দুর্গোসবের আড়ম মেলা অনুষ্ঠিত
  • Leave a Reply