রিকশা-ঠেলাগাড়ির জন্য আলাদা লেনের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

নিজস্ব প্রতিবেদক : রিকশা ও ঠেলাগাড়ির মতো ধীর গতির যান চলাচলের জন্য সড়কে নিরাপদ ও সুষ্ঠু ব্যবস্থা রাখতে হবে নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এজন্য সব সড়কে করতে হবে আলাদা লেন। মঙ্গলবার জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক) বৈঠকে এসব নির্দেশনা দেন প্রধানমন্ত্রী। পরে সাংবাদিকদের কাছে ব্রিফিংয়ে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান এসব তথ্য জানান।
তিনি বলেন, সেই সঙ্গে দেশের জাতীয়, জেলা ও আঞ্চলিক পর্যায়ের সব সড়ক পর্যায়ক্রমে প্রশস্ত ও পুরু করা এবং পুরনো সরু সেতু ভেঙে নতুন করে করার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার বিষয়ে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, মহাসড়কে স্লো মুভিং ভেহিকেল (রিকশা, ঠেলাগাড়ি) যাতে নিরাপদে চলতে পারে, তার ব্যবস্থা থাকতে হবে। খালি দ্রুতগতির গাড়ি চলে যাবে ধুলা উড়িয়ে, মানুষ মেরে- তা সম্ভব নয়। ঠেলাগাড়ি, রিকশা, ভ্যানগাড়ি যেন সব সড়কে পুরো নিরাপত্তার সঙ্গে চলতে পারে। এটা প্রধানমন্ত্রীর সাধারণ নির্দেশনা।
মহাসড়কে আলাদা লেন করা হবে কি না জানতে চাইলে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, আলাদা স্বল্পগতির লেন করা হবে। নির্দিষ্ট দূরত্বে বিশ্রামাগারও থাকতে হবে। তাছাড়া সরু সেতুগুলো ভেঙে বড় করা হবে। এরইমধ্যে কাজ শুরু হয়েছে অনেক জায়গায়।
এম এ মান্নান জানান, বেসরকারি উদ্যোক্তারা যাতে দোকান বা টয়লেট বানাতে পারেন সেজন্য জমি নির্ধারণের নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। প্রধানমন্ত্রীর বরাত দিয়ে পরিকল্পনামন্ত্রী আরো জানান, মহাসড়কে আমরা জায়গা দেব, কিন্তু দোকান তুলে দেব না। ব্যক্তি পর্যায়ে ব্যবসা করতে পারবেন যে কেউ। তাছাড়া সড়কের যেকোনো প্রকল্প বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় এবং নৌ-পরিহন মন্ত্রণালয়কে যৌথভাবে কাজ করার নির্দেশনা দিয়েছেন তিনি। #####






সংযুক্তিমূলক সংবাদ ..

  • গণভবন থেকে ফ্লাই্ওভারসহ কয়েকটি প্রকল্প উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী
  • সংসদ অধিবেশন বসছে ৭ নভেম্বর
  • সিলেটে ফিটনেসবিহীন যানবাহন ও দুর্ঘটনা প্রতিরোধে ট্রাফিক পুলিশের অভিযান
  • একনেকে ১০ প্রকল্পের অনুমোদন
  • নতুন মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল
  • শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অন্যায় আচরণ সহ্য করা হবে না: প্রধানমন্ত্রী
  • ৫ দফা দাবি মেনে বুয়েটের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ, আন্দোলন আপাতত স্থগিত
  • ১০ দাবির সবগুলোই মেনে নিয়েছেন ভিসি, এরপর কেন আন্দোলন : প্রশ্ন প্রধানমন্ত্রীর
  • Leave a Reply