সিলেটের বি:বাজারে ক্ষতিগ্রস্ত সড়ক সংস্কারে ব্যয় হবে ১২ কোটি টাকা

shahriar1978-1474891641-fc3d8ce_xlarge
Share Button

হাফিজুল ইসলাম লস্কর :: অতিবৃষ্টি আর দীর্ঘস্থায়ী বন্যায় বিয়ানীবাজারের ৫৫ কি.মি সড়ক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এর মধ্যে বেশী ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ১৩ কি.মি সড়ক। যেখান দিয়ে যান চলাচল দুরূহ হয়ে পড়েছে। সড়ক ও জনপথ বিভাগ (সওজ), স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) এবং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানদের কাছ থেকে এসব তথ্য জানা গেছে। আর ক্ষতিগ্রস্ত সড়ক দ্রুত সংস্কারে ১২ কোটি টাকা ব্যয় হবে বলে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে পৃথক প্রতিবেদন জমা দিয়েছে সওজ ও এলজিইডি।

সিলেট জেলায় সওজের ১১৬ কিলোমিটার এবং স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের ২৫৫ কিলোমিটার সড়ক অতিবৃষ্টি ও বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এর মধ্যে বিয়ানীবাজার উপজেলার ৪৬ কিলোমিটার সড়ক ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ক্ষতিগ্রস্ত হওয়া অপর ৯ কি.মি গ্রামীণ সড়ক বলে জানান উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মুফতি শিব্বির আহমদ।

বিভিন্ন সময় এসব সড়ক এলজি এসপি’র তহবিল থেকে আরসিসি ঢালাই করা হয়। পুনরায় এগুলো সংস্কারে প্রায় কোটি টাকা ব্যয় হবে বলে তিনি জানান।

বিয়ানীবাজারের ব্যবসায়ী টিপু মিয়া জানান, ‘উপজেলার সড়কগুলোর অবস্থা খুব খারাপ। যেভাবে ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় যানবাহন চলে তাতে ভাঙ্গা সড়কের কারণে দুর্ঘটনার সম্ভাবনা বেশী। তাছাড়া গর্তে পড়ার প্রায়ই যানবাহনের ক্ষতি হচ্ছে। এসব বিষয় জরুরীভাবে দেখা প্রয়োজন।’

এদিকে বন্যার পানি নেমে যাওয়ার পর ক্ষতিগ্রস্ত সড়কগুলো পরিদর্শন করে দ্রুত সময়ের মধ্যে ক্ষয়ক্ষতি নিরূপণ করার নির্দেশ দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এমপি। মন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী সওজ এবং এলজিইডির কর্মকর্তারা সংশ্লিষ্ট দপ্তরে সংস্কারের জন্য প্রাক্কলিত ব্যয় নির্ধারণ করে পৃথক প্রতিবেদন জমা দিয়েছেন।

সিলেট সওজের নির্বাহী প্রকৌশলী উৎপল সামন্ত বলেন, ‘জেলায় সওজের অধীনে ৫৪৪ কিলোমিটার সড়ক রয়েছে। এস সড়কের মধ্যে অতিবৃষ্টিতে ক্ষতি হয়েছে ১১০ কিলোমিটার।’
তিনি বলেন, ‘সড়কে তিন মেয়াদে আমরা মেরামত ও সংস্কার কাজ করে থাকি। এর মধ্যে স্বল্পমেয়াদী কাজের অংশ হিসেবে বিয়ানীবাজার উপজেলার ২৬ কিলোমিটারের মধ্যে ভাঙা অংশে মেরামত কাজ শুরু হয়েছে। এছাড়া এ সড়কের বন্যায় বেশী ক্ষতি হওয়া দেড় কিলোমিটারে সংস্কার কাজ করতে আমরা দরপত্র আহ্বান করব।’

সওজের বিয়ানীবাজার উপজেলার দায়িত্বে নিয়োজিত এসও একেএম জাকারিয়া জানান,-‘বিয়ানীবাজার উপজেলায় বন্যার পানিতে তলিয়ে যাওয়া এবং বৃষ্টির পানিতে জলাবদ্ধ হয়ে ক্ষতিগ্রস্ত সড়কের পরিমাণ ৬ কিলোমিটার। ইতিমধ্যে অতিবৃষ্টিতে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়া সড়কগুলোতে স্বল্পমেয়াদী মেরামত কাজ শুরু করা হয়েছে। মধ্যমেয়াদী কাজ করার জন্য বিটুমিন, ইট, বালু ও পাথর মজুদ রাখা হয়েছে। কিছু সড়কের মধ্যমেয়াদী কাজ শিগগিরই শুরু করা হবে। এছাড়া বন্যায় তলিয়ে যাওয়া ৬ কিলোমিটার সড়কের দীর্ঘমেয়াদি সংস্কার কাজ করতে হবে।
তিনি আরো বলেন,-‘উপজেলার সিলেট-বিয়ানীবাজার সড়কের ৩ কি.মি জায়গা বেশী ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।’

উপজেলা প্রকৌশলী রামেন্দ্র হোম চৌধুরী জানান, ‘হেতিমগঞ্জ-বিয়ানীবাজার সড়কের বিয়ানীবাজার অংশে ১০ কিলোমিটার সড়ক বেশী ক্ষতিগ্রস্ত হয়। বন্যার পানি নেমে গেলেই ক্ষতিগ্রস্ত সড়কের সংস্কার কাজ শুরু হবে।

উপজেলা প্রকৌশল অফিস সূত্রে জানা যায়, অতিবৃষ্টি ও বন্যায় এলজিইডির এখানকার মোট ২০টি সড়কের ৪০ কিলোমিটার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এসব সড়ক সংস্কার ও মেরামতের জন্য স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় ৬ কোটি ৪৮ লাখ টাকা বরাদ্দ করেছে।






সঙ্গতিপূর্ণ আরো খবর

  • শার্শায় আয়নাল চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে উদ্দেশ্য মূলক বক্তব্য’র প্রতিবাদে সাংবাদিক সম্মেলন
  • বালু খেকোদের অস্ত্রের আঘাতে আহত ২, গোলাপগঞ্জে উত্তেজনা
  • নকলা-নালিতাবাড়ি যৌথ ফুটবল টূর্ণামেন্ট অনুষ্ঠিত
  • পার্বতীপুরে কর্মরত প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় ও আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত
  • মান্দায় স্কুল ছাত্রীর সাবেক স্বামী ও বন্ধুর অসামাজিক কাজে বাঁধা দেয়ায় ৩জনকে পিটিয়ে জখম ভিন্নখাতে প্রবাহিতের অপচেষ্ঠা
  • মান্দায় বাসের ধাক্কায় বিভাগীয় কমিশনারসহ ২জন আহত
  • মুক্তিযোদ্ধা অনিল বর্মণ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় সমাহিত
  • নকলায় বাল্যবিবাহ ও মাদক বিরোধী শপথ ও সচেতনতামূলক সভা অনুষ্ঠিত