মোহনগঞ্জে যৌতুকের দায়ে গৃহবধূকে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ

18671053_1913369328689153_

.

নেত্রকোনা প্রতিনিধি :: নেত্রকোনার মোহনগঞ্জে যৌতুকের দায়ে শাকিয়া রহমান (২৮) নামে এক গৃহবধূকে অমানুষিক নির্যাতনের পর তাকে শ্বাসরোধে হত্যার চেষ্টা করেছিল বলে তার পাষণ্ড স্বামী জিয়াউর রহমানের বিরুদ্ধে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

গত মঙ্গলবার রাত ১২টার দিকে উপজেলার বড়তলী- বানিয়াহারি ইউনিয়নের বড়তলী গ্রামে এলোমহর্ষক
ঘটনাটি ঘটে। গুরুতর আহতাবস্থায় ওই গৃহবধূকে বুধবার দুপুরে মোহনগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কম্প্লেক্সে ভর্তি করা হয়। পরে সেখানে তার অবস্থার অবনতি দেখে কর্তব্যরত চিকিৎসক শাকিয়াকে নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে স্থানান্তরিত করেন।

এ ঘটনায় বুধবার দুপুর দেড়টার দিকে গৃহবধূ শাকিয়ার বাবা মো ফয়েজ উদ্দিন বাদি হয়ে জিয়াউরকে আসামী
করে মোহনগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

হাসপাতাল ও স্থানীয়সূত্রে জানা গেছে, ২০০৬ সালে উপজেলার বড়তলী-বানিয়াহারি ইউনিয়নের বড়তলী গ্রামের মৃত আলী উসমানের ছেলেজিয়াউর রহমানের সাথে একই উপজেলার মাঘান-সিয়াধার ইউনিয়নের পেরিরচর গ্রামের ফয়েজ উদ্দিনের মেয়ে শাকিয়া রহমানের বিয়ে হয়। বিয়ের পর প্রায় ৫/৬ মাস যেতে না যেতেই জিয়াউর রহমান স্ত্রী শাকিয়াকে তার বাবার বাড়ি থেকে ১ লাখ টাকা যৌতুক এনে দেওয়ার জন্য চাপসৃষ্টি করতে থাকলে এক পর্যায়ে শাকিয়া তার বাবার বাড়িতে গিয়ে বাবা -মাকে বুঝিয়ে শুনিয়ে তাদের কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা এনে তার স্বামীকে দেন। এর কিছুদিন যেতে না যেতেই গৃহবধূ শাকিয়ার উপর তার স্বামী জিয়াউর বাকি ৫০ হাজার টাকা এনে দেওয়ার জন্যে শারিরীক ও মানষিক চাপ সৃষ্টি করতে থাকলে শাকিরা আবারো তার বাবার বাড়ি থেকে আরো ৩০ হাজার টাকা এনে তার স্বামীকে দেন।

এভাবে শাকিরা পাঁচ দফায় তার বাবার বাড়ি থেকে স্বামীকে প্রায় আড়াই লাখ টাকা এনে দেওয়ার পরও তার উপর যৌতুক লোভী স্বামীর নির্যাতন থামেনি। এরই মধ্যে ওই দম্পতি সায়েম রহমান (৯),তামিম রহমান (৮) ও তাজিম রহমান (৩) নামে তিনটি পুত্র সন্তানের জন্ম দেন। গত মঙ্গলবার সন্ধ্যা থেকেই যৌতুক লোভী স্বামী জিয়াউর ব্যাবসা করার জন্য আরো ২ লাখ টাকা বাবার বাড়ি থেকে এনে দেয়ার জন্য শাকিয়ার উপর চাপ সৃষ্টি করতে থাকে। কিন্তু শাকিয়া তার বাবার বাড়ি থেকে আর কোনো টাকা এনে দিতে পারবেনাবলে অপরাগতা প্রকাশ করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে জিয়াউর তার স্ত্রী শাকিয়ার উপর শারিরীকভাবে নির্যাতন শুরু করে এবং এক পর্যায়ে রাত ১২টার দিকে জিয়াউর শাকিয়ার মুখে বালিশ চাপা দিয়ে তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করার চেষ্টা করে। এ সময় তার চিৎকারে ও তাদের সন্তানদের কান্নাকাটি শুনে প্রতিবেশীরা ঘটনাস্থলে ছুটে আসলে পাষণ্ড স্বামী জিয়াউর পেছনের দরজা দিয়ে পালিয়ে যায়।
পরে বুধবার সকালে এ বিষয়টি শাকিয়ার বাবার বাড়িতে জানালে তার বাবার বাড়ির লোকজন সেখান থেকে
শাকিয়াকে উদ্ধার করে ওই দিন দুপুরে মোহনগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কম্প্লেক্সে এনে ভর্তি করেন।

এ ব্যাপারে মোহনগঞ্জ থানার ওসি মো মেজবাহ উদ্দিন আহম্মেদ সাতক্ষীরা নিউজকে বলেন, এ ব্যাপারে তদন্ত স্বাপেক্ষে আইনগত ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।






সঙ্গতিপূর্ণ আরো খবর

  • সিরাজগঞ্জে দুই মাদক বিক্রেতা আটক
  • সিরাজগঞ্জে মসজিদ, মন্দির সংস্কারের চেক ও সেলাই মেশিন বিতরন
  • সিরাজগঞ্জের তাড়াশে ইভটিজিংয়ের শিকার গৃহবধূর আত্মহননের চেষ্টা
  • ঈদের কেনাকাটায় কলকাতা যাচ্ছে যশোরের সীমান্ত অঞ্চলের মানুষ
  • সিলেট-ফেঞ্চুগঞ্জ সড়কের দুই পাশের গাছ নিধনে পরিবেশ বিপর্যয়ের আশঙ্কা
  • জাতীয় বিদ্যুৎ শ্রমিকলীগ বড়পুকুরিয়া তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র শাখার উদ্যোগে ইফতার মাহফিল
  • চিকিৎসা শাস্ত্রে অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ শেরে বাংলা পদক-২০১৭ পাচ্ছেন ডা. মাহি
  • মোল্লারপুরে মসজিদের বাল্ব লাগানোকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে নিহত ১