মোহনগঞ্জে যৌতুকের দায়ে গৃহবধূকে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ

18671053_1913369328689153_

.

নেত্রকোনা প্রতিনিধি :: নেত্রকোনার মোহনগঞ্জে যৌতুকের দায়ে শাকিয়া রহমান (২৮) নামে এক গৃহবধূকে অমানুষিক নির্যাতনের পর তাকে শ্বাসরোধে হত্যার চেষ্টা করেছিল বলে তার পাষণ্ড স্বামী জিয়াউর রহমানের বিরুদ্ধে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

গত মঙ্গলবার রাত ১২টার দিকে উপজেলার বড়তলী- বানিয়াহারি ইউনিয়নের বড়তলী গ্রামে এলোমহর্ষক
ঘটনাটি ঘটে। গুরুতর আহতাবস্থায় ওই গৃহবধূকে বুধবার দুপুরে মোহনগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কম্প্লেক্সে ভর্তি করা হয়। পরে সেখানে তার অবস্থার অবনতি দেখে কর্তব্যরত চিকিৎসক শাকিয়াকে নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে স্থানান্তরিত করেন।

এ ঘটনায় বুধবার দুপুর দেড়টার দিকে গৃহবধূ শাকিয়ার বাবা মো ফয়েজ উদ্দিন বাদি হয়ে জিয়াউরকে আসামী
করে মোহনগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

হাসপাতাল ও স্থানীয়সূত্রে জানা গেছে, ২০০৬ সালে উপজেলার বড়তলী-বানিয়াহারি ইউনিয়নের বড়তলী গ্রামের মৃত আলী উসমানের ছেলেজিয়াউর রহমানের সাথে একই উপজেলার মাঘান-সিয়াধার ইউনিয়নের পেরিরচর গ্রামের ফয়েজ উদ্দিনের মেয়ে শাকিয়া রহমানের বিয়ে হয়। বিয়ের পর প্রায় ৫/৬ মাস যেতে না যেতেই জিয়াউর রহমান স্ত্রী শাকিয়াকে তার বাবার বাড়ি থেকে ১ লাখ টাকা যৌতুক এনে দেওয়ার জন্য চাপসৃষ্টি করতে থাকলে এক পর্যায়ে শাকিয়া তার বাবার বাড়িতে গিয়ে বাবা -মাকে বুঝিয়ে শুনিয়ে তাদের কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা এনে তার স্বামীকে দেন। এর কিছুদিন যেতে না যেতেই গৃহবধূ শাকিয়ার উপর তার স্বামী জিয়াউর বাকি ৫০ হাজার টাকা এনে দেওয়ার জন্যে শারিরীক ও মানষিক চাপ সৃষ্টি করতে থাকলে শাকিরা আবারো তার বাবার বাড়ি থেকে আরো ৩০ হাজার টাকা এনে তার স্বামীকে দেন।

এভাবে শাকিরা পাঁচ দফায় তার বাবার বাড়ি থেকে স্বামীকে প্রায় আড়াই লাখ টাকা এনে দেওয়ার পরও তার উপর যৌতুক লোভী স্বামীর নির্যাতন থামেনি। এরই মধ্যে ওই দম্পতি সায়েম রহমান (৯),তামিম রহমান (৮) ও তাজিম রহমান (৩) নামে তিনটি পুত্র সন্তানের জন্ম দেন। গত মঙ্গলবার সন্ধ্যা থেকেই যৌতুক লোভী স্বামী জিয়াউর ব্যাবসা করার জন্য আরো ২ লাখ টাকা বাবার বাড়ি থেকে এনে দেয়ার জন্য শাকিয়ার উপর চাপ সৃষ্টি করতে থাকে। কিন্তু শাকিয়া তার বাবার বাড়ি থেকে আর কোনো টাকা এনে দিতে পারবেনাবলে অপরাগতা প্রকাশ করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে জিয়াউর তার স্ত্রী শাকিয়ার উপর শারিরীকভাবে নির্যাতন শুরু করে এবং এক পর্যায়ে রাত ১২টার দিকে জিয়াউর শাকিয়ার মুখে বালিশ চাপা দিয়ে তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করার চেষ্টা করে। এ সময় তার চিৎকারে ও তাদের সন্তানদের কান্নাকাটি শুনে প্রতিবেশীরা ঘটনাস্থলে ছুটে আসলে পাষণ্ড স্বামী জিয়াউর পেছনের দরজা দিয়ে পালিয়ে যায়।
পরে বুধবার সকালে এ বিষয়টি শাকিয়ার বাবার বাড়িতে জানালে তার বাবার বাড়ির লোকজন সেখান থেকে
শাকিয়াকে উদ্ধার করে ওই দিন দুপুরে মোহনগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কম্প্লেক্সে এনে ভর্তি করেন।

এ ব্যাপারে মোহনগঞ্জ থানার ওসি মো মেজবাহ উদ্দিন আহম্মেদ সাতক্ষীরা নিউজকে বলেন, এ ব্যাপারে তদন্ত স্বাপেক্ষে আইনগত ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।






সঙ্গতিপূর্ণ আরো খবর

  • অনিয়ম ও দুর্নীতির মাধ্যমে পাইকগাছার দারুনমল্লিক বিদ্যালয়ে নৈশ প্রহরী পদে নিয়োগের অভিযোগ
  • যশোরে আওয়ামী লীগ নেতাকে ছুরিকাঘাতে হত্যা
  • কুড়িগ্রামের রাজারহাটে উপজেলায় গ্রামভিত্তিক ভিডিপি’র মৌলিক প্রশিক্ষণের সমাপনি অনুষ্ঠান ও সনদপত্র বিতরণ
  • পাইকগাছায় গ্রাম পুলিশের বিরুদ্ধে আইডি ও সনদপত্র জালিয়াতির অভিযোগ
  • মানবতার কল্যানে ইউনাইটেড ফোরাম’র আনুষ্টানিক যাত্রা শুরু
  • পার্বতীপুরের বড়পুকুরিয়ায় কয়লা খনি শ্রমিক নেতাদের অবহেলার কারণে দু’মাস ধরে বেতন ভাতা বন্ধ
  • কপিলমুনিতে রোহিঙ্গা মুসলিমদের গণহত্যা ও নির্যাতনের প্রতিবাদে মানববন্ধন
  • পাইকগাছায় শ্রমিকদলের দেলুটি ইউনিয়ন কমিটি গঠন