দক্ষিণ সুনামগঞ্জ-জগন্নাথপুর পর্যন্ত ২১ কি.মি রাস্তায় ৯টি সেতুই ঝুঁকিপূর্ণ

dokkin-sunamganj


সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি ::
দক্ষিণ সুনামগঞ্জ-জগন্নাথপুর সড়কে ২১ কি.মি এর মধ্যে সেতু আছে মোট ১৬টি এর মধ্যে ৯টি বেইলি সেতুই ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে।

এছাড়া অনেক নতুন পাকা কাজ করা সেতুর হয় ডান পাশ রা বাম পাশ সড়কের বেশির ভাগই ভেঙ্গে গেছে। আর প্রতিদিন এইসব ঝুঁকিপূর্ণ সেতু দিয়েই চলছে যানবাহন। এতে ঘটতে পারে যেকোন সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনা।

সুনামগঞ্জ সড়ক ও জনপথ বিভাগ (সওজ) সুত্রে জানা যায়, সুনামগঞ্জ সিলেট সড়কের দক্ষিণ সুনামগঞ্জ এলাকা থেকে জগন্নাথপুর পৌর এলাকা পর্যন্ত সড়কের দুরত্ব রয়েছে ২১ কি.মি। এবং ১৬টি সেতুর মধ্যে পাকা সেতু ৭টি এবং বেইলি সেতু ৯টি, এই ৯টি সেতুই আছে ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায়। আবার এর মধ্যে ৭টি সেতুই রয়েছে মারাত্বক ঝুঁকিপূর্ণ।

স্থানীয়রা জানান জগন্নাথপুর উপজেলার রাণীগঞ্জ এলাকায় কুশিয়ারা নদীতে ফেরী চালু হওয়ার পর থেকেই এ সড়ক দিয়ে বেড়েছে যন চলাচল। এর মধ্যে একটি সেতু নির্মানের বৃত্তিপস্থর স্থাপন ও করা হয়েছে।

সুনামগঞ্জ থেকে এই সড়ক দিয়ে ঢাকা যেতে প্রায় এক ঘন্টা সময় কম লাগে বিধায় অনেকেই এই রাস্তা দিয়ে ঢাকা যাতায়াত করেন। দক্ষিণ সুনামগঞ্জ এলাকা থেকে সিচনী, দরগাপাশা, আক্তাপাড়া, ভমভমি বাজার, ভাতগাঁও, কুন্দনালা, গয়াসপুর, কলকলি, খাসিলা, মজিদপুর সহ ৯টি ঝুঁকিপূর্ণ সেতু রয়েছে। এসব সেতুর পাশে ঝুঁকিপূর্ণ সেতু উল্লেখ করে সাইনবোর্ড ও দিয়ে রেখেছে (সওজ) কতৃপক্ষ।

কলকলি ও কুন্দানালা এলাকায় সেতুটি একদিকে হেলে আছে,সেতুর মাঝখানে বেশিরভাগ স্টিলের পাটাতন ভেঙ্গে যাওয়ায় সেগুলো হাজারো জোড়াতালি দেয়া হয়েছে। মজিদপুর এলাকায় সেতুর মাঝখানে অনেক জোড়াতালি দেওয়া আছে।

কলকলি এলাকার বাসিন্দা জমসেদ নূও বলেন, এখন এই ব্রিজের যে অবস্থা যেকোন সময় গাড়ি পেসেঞ্জার নিয়ে ভেঙ্গে পরতে পারে।

এ সড়কের নিয়মিত বাস চালক আব্দুল আলীম বলেন, ব্রীজের উপরে গাড়ী উঠলে মনে হয় এই বুঝিঁ ভেঙ্গেই পরছে। ব্রীজে আসার আগেই আমরা ভয়ে থাকি।

দরগাপাশা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ছামিরুল ইসলাম চৌধুরী শান্ত বলেন, আমরা কয়েক বছর ধরে শুনে আসছি সেতুগুলো তুলে নতুন করে পাকা সেতু নির্মান করা হবে। একইসঙ্গে সড়কের সংস্কার কাজ ও হবে। কিন্তু এখন দেখছি নতুন পাকা ব্রীজের সড়কের গোড়াও ভেঙ্গে যাচ্ছে। শুধুই আলোচনা হচ্ছে কাজ আর হচ্ছে না। এদিকে দিন দিন সাধরণ জনগন ভুগান্তির পোহাচ্ছেন।

এ ব্যাপারে সুনামগঞ্জ (সওজ) বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী শফিকুল ইসলাম বলেন, এই সড়কে বেশ কয়েকটি বেইলি সেতু আছে। এর মধ্যে আমরা বেশি ঝুঁকপূর্ণ ৭টি সেতু চিহ্নিত করে পাকা সেতু নির্মানের জন্য পরিকল্পনা কমিশনে একটি প্রকল্প প্রস্থাব পাটিয়েছি।

প্রকল্পটি বর্তমানে প্রক্রিয়াধীন আছে।






সঙ্গতিপূর্ণ আরো খবর

  • সিলেট এমসি’র ভবন নির্মাণের উদ্ভোধন শনিবার, সৌন্দর্যহীনতার আশংকা শিক্ষার্ধীদের
  • কাশোয়ারচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শনে এডিসি জেনারেল
  • পাইকগাছা উপজেলা পরিষদের মাসিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত
  • শহীদ আহসান উল হাবীব উচ্চ বিদ্যালয়ের হৃদয়ে বন্ধুসভার কমিটি গঠন
  • আধ্যাত্মিক নগরী সিলেটকে আধ্যাত্মিক ভাবে সাজাতে চাই : মেয়র আরিফ
  • ময়মনসিংহে ২ জনকে খুন করে ১০ গরু লুট
  • উল্লাপাড়ায় ২১ আগষ্ট গ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্মরণে শোক র‌্যালি
  • তাড়াশে বন্যার পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু